‘প্রধানমন্ত্রী হয়েও সুইচ বন্ধ করি, আপনারাও করুন’

‘প্রধানমন্ত্রী হয়েও সুইচ বন্ধ করি, আপনারাও করুন’

উৎপাদন ব্যয়ের চেয়ে কম মূল্যে বিদ্যুত সরবরাহ করা হয় জানিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন, এতে দেশের উপকারের পাশাপাশি উপকৃত হবেন যারা বিদ্যুৎ সাশ্রয় করছেন তারাও। কারণ, তাদের বিল কম আসবে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি নিজেও কক্ষ থেকে বের হলে নিজের হাতে সুইচ বন্ধ করেন। নিজের কাজ নিজে করতে লজ্জার কিছু নেই।

বৃহস্পতিবার গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ৪১০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও ১৫ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে সরকারের নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়িয়েছে আর বিএনপি জনগণকে বিদ্যুৎ না দিয়ে খাম্বা দিয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, বিদ্যুৎ খাতে সক্ষমতা অর্জনের জন্য তার সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে। এ খাতে প্রচুর ভর্তুকি দিচ্ছে।

বেসরকারি খাতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ব্যবস্থা নেয়ার কথাও উল্লেখ করে জনগণকে অহেতুক ফ্যান, লাইট না জ্বালিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যয়ী হওয়ার তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী।

বিদ্যুতায়নের নাম করে বিএনপি দেশের মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে— তিনি বলেন, বিএনপি থাকলে দেশের কোনো উন্নতি হয় না।

অনুষ্ঠানে রংপুরের পীরগঞ্জের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর নারীরা ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেন। এ সময় তারা প্রধানমন্ত্রীকে নববর্ষ বরণের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানান।

এর আগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ৪১০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্ল্যান্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় আরো ১৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। আর এর মধ্য দিয়ে দেশে মোট ৫১টি উপজেলা বিদ্যুৎ সরবরাহের আওতায় এলো।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট