ফুটবল অবসর নেওয়ার পরও বর্ষসেরা লাম!

ফুটবল অবসর নেওয়ার পরও বর্ষসেরা লাম!

ফুটবলে বর্ষসেরা হওয়ার দৌড়ে একজন স্ট্রাইকার যতটা শিরোনাম কাড়েন, ততটা হয়তো পারেন না একজন ডিফেন্ডার। তবে ফিলিপ লাম তার ফুটবল ক্যারিয়ার শেষে সেরা হওয়ার মর্যাদা পেলেন। জার্মানির বর্ষসেরা ফুটবলার হলেন বায়ার্ন মিউনিখের সাবেক এ অধিনায়ক।

গত মৌসুম শেষে বায়ার্নের সঙ্গে ১৫ বছরের সম্পর্ক চুকিয়ে ফেলেন লাম। শুধু তাই নয়, ফুটবলকে চিরতরে বিদায় জানিয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে অ্যালিয়েঞ্জ এরেনায় পেয়েছেন অগণিত সাফল্য। ৮টি বুন্দেসলিগা শিরোপার সঙ্গে একবার হয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী। ক্যারিয়ারকে বিদায় জানানোর পর রবিবার তারই স্বীকৃতি পেলেন জার্মানির বিশ্বকাপজয়ী সাবেক ডিফেন্ডার।

২০০৪ ও ২০০৬ সালে দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছিলেন লাম, এবার হলেন প্রথম। তাই উচ্ছ্বাসের কমতি ছিল না তার, ‘এটা অনেক সম্মানের। আমি সত্যিই খুশি। সাংবাদিকরা আমার পুরো ক্যারিয়ার যাচাই করে ভোট দিয়েছেন মনে হচ্ছে। ইতিহাস বলে যে, একজন ডিফেন্ডারের জন্য বর্ষসেরা হওয়া খুব কঠিন। কারণ সবসময় একজন ফরোয়ার্ড স্বাভাবিকভাবে শিরোনাম কাড়ে।’

বিদেশে কিংবা জার্মানিতে খেলা প্রত্যেক জার্মান খেলোয়াড় এ পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হন। কিকার ম্যাগাজিন আয়োজিত এ ইভেন্টে এবারই প্রথমবার সাংবাদিকরা ভোট দিলেন। রিয়াল মাদ্রিদের টনি ক্রুস ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের পিয়েরে-এমেরিক অবেমেয়াংকে টপকে যে লড়াইয়ে জিতেছেন জার্মানির সাবেক অধিনায়ক। গত বছর বর্ষসেরা হয়েছিলেন লামের সাবেক জার্মানি ও বায়ার্ন সতীর্থ জেরোমে বোয়েটাং, যিনিও ছিলেন সেন্টার ব্যাক।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট