ফেড কাপে কেভিতোভার নৈপুণ্যে চেক প্রজাতন্ত্রের লিড

ফেড কাপে কেভিতোভার নৈপুণ্যে চেক প্রজাতন্ত্রের লিড

ফেড কাপে দুর্দান্ত শুরু করেছে চেক প্রজাতন্ত্র। মহিলা এককের প্রথম রাউন্ডে দুই জয় তুলে নিয়েছে তারা। দুইবারের উইম্বলডন জয়ী পেত্রা কেভিতোভা এদিন ৬-২, ১-৬ এবং ৬-৩ গেমে পরাজিত করেছেন সুইজারল্যান্ডের ভিক্টোরিজা গোলুবিককে। অন্য ম্যাচে বারবোরা স্ট্রাইকোভা ৬-২ এবং ৬-৪ গেমে খুব সহজেই পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেন বেলিন্ডা বেনচিচকে। এর ফলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় চেক প্রজাতন্ত্র।

চেক প্রজাতন্ত্রের টেনিস কিংবদন্তি জানা নোভোতনা গত বছরের নবেম্বরে পরলোকগমন করেন। দীর্ঘদিন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মাত্র ৪৯ বছর বয়সেই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন তিনি। তার এমন বিদায়ে শনিবার প্রাগের ওটু এ্যারিনায় নেমে এসেছিল শোকের ছায়া। কোর্টে একমিনিট নীরবতা পালন করেন চেক তারকারা। পেত্রা কেভিতোভার চোখ থেকে তো নেমে আসে জল। এ প্রসঙ্গে ২৭ বছরের এই টেনিস তারকা নিজের অভিমত প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, ‘কোর্টে গিয়ে একমিনিট নীরবতা পালন করি আমরা। এই সময়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ি আমরা।’ আগামী এপ্রিলে অনুষ্ঠিত হবে ফেড কাপের সেমিফাইনাল। যেখানে ইতোমধ্যেই এক পা দিয়ে রাখা চেক প্রজাতন্ত্রের সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ হতে পারে ২০১৭ আসরের রানারআপ বেলারুশ অথবা জার্মানি।

এদিকে বয়সে ছত্রিশকেও ছাড়িয়ে গেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। এই সময়ের মধ্যে অসামান্য সব কীর্তি গড়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্য এক উচ্চতায়। নিজের ২৩তম গ্র্যান্ডস্লাম জয় করেছিলেন গত বছরের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে। এরপর গত ডিসেম্বর দুবাইতে অনুষ্ঠিত একটি প্রদশর্নী ম্যাচে প্রথম কোর্টে ফিরতে দেখা যায় তাকে। তবে সেবার ফ্রেঞ্চ ওপেনের চ্যাম্পিয়ন জেলেনা ওস্টাপেঙ্কোর কাছে হেরে গিয়েছিলেন টেনিসের এই বিশ্বসেরা তারকা। আগামী মাসে যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামিতে অনুষ্ঠিত হবে মিয়ামি ওপেন। সেখানেও ওয়াইল্ড কার্ড এন্ট্রির মাধ্যমে খেলার সুযোগ পেতে যাচ্ছেন তিনি। তবে ২০১৫ সালের এপ্রিলের পর আর ফেড কাপে খেলতে না দেখা সেরেনাকে নিয়ে এবার একটু বেশি উৎসাহী তার ভক্ত-অনুরাগীরা। মহিলা এককে না খেললেও দ্বৈতে খেলছেন তিনি। ফেড কাপে তার দলে বড় বোন ভেনাস উইলিয়ামসকে সঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন সেরেনা। যিনি এখন র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮ নম্বরে অবস্থান করছেন। তার দলে আরও দেখা যাবে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৭ নম্বরে অবস্থান করা কোকো ভেন্ডেওয়েঘেকে। সেই সঙ্গে আছেন ৬২ নম্বরে অবস্থান করা লরেন ডেভিসও। তবে ফেড কাপের দ্বৈতে কোর্টে নামার আগে বড় বোন ভেনাসের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন সেরেনা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ক্যারিয়ারে অসাধারণ মাপের একজন পার্টনার পেয়েছি আমি। সে ভেনাস, তার সঙ্গে আমার সম্পর্কটাও দারুণ। সে খুবই ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির মানুষ।’

সেরেনা উইলিয়ামসের মতো রজার ফেদেরারও ঠিক একই বিন্দুতে। দুজনেরই বয়স সমান। সেরেনা কোর্টের বাইরে ছিটকে গেলেও ফেদেরার অসাধারণ খেলছেন ক্যারিয়ারের গোধূলিতে। বিশেষ করে গত বছরটা দুর্দান্ত কেটেছে তার। এই বয়সেও প্রতিপক্ষের আতঙ্কের নাম ফেড এক্সপ্রেস। গত এক বছরের মধ্যেই তিন তিনটি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের অবিস্মরণীয় কীর্তি গড়েন সুইজারল্যান্ডের এই জীবন্ত কিংবদন্তি। গত মাসে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন ফেদেরার। সেই সঙ্গে ক্যারিয়ারের ২০তম গ্র্যান্ডস্লাম জেতেন তিনি। তার প্রশংসায় সেরেনা বলেন, ‘আমি এমন কোন খেলোয়াড় দেখি না যে ফেদেরার দ্বারা অনুপ্রাণিত হননি।’ এদিকে ফেড কাপে সেরেনা-ভেনাসদের প্রতিপক্ষ হল্যান্ডের ক্যাপ্টেন পল হারহুইস নিজেদের দল নিয়ে সন্তুষ্ট। ম্যাচের আগে সেরেনার নিষ্প্রভ পারফর্মেন্সকেই তাদের সাফল্যের কারণ হিসেবে দেখছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘স্কোয়াড যদি সফল হয় তাহলে তা আমেরিকার টেনিস ইতিহাসের জন্য সবচেয়ে বড় বেদনার কারণ হবে। যদি আপনি সেরেনার দিকে তাকান তাহলে দেখবেন যে সেরেনার সাম্প্রতিক পারফর্মেন্স খুব বেশি ভাল নয়, তাই আমরা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।’

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট