বাড়ি ভাড়া নেওয়ার আগে যে বিষয়গুলি জানা দরকার

বাড়ি ভাড়া নেওয়ার আগে যে বিষয়গুলি জানা দরকার

কখনও পড়াশোনার জন্য, কখনও আবার চাকুরিসূত্রে অনেককেই বাড়ির বাইরে থাকতে হয়। নতুন জায়গায় নিজের মতো থাকতে খোঁজ চলে ভাড়া বাড়ির। কিন্তু বাড়ি ভাড়া নিলেই তো হবে না, লক্ষ্য রাখতে হবে বেশ কিছু বিষয়ের উপর। যাতে অহেতুক কোনও সমস্যার সৃষ্টি না হয়। আর টাকা-পয়সার ব্যাপার। নিজের পকেট কেটে যখন বাড়ি ভাড়া করবেনই, জানা দরকার এই বিষয়গুলি-

১. বাজেট নির্ধারণ : বাড়ির ভাড়া নেওয়ার আগে নিজের বাজেট কত, সেটা ঠিক করে নেওয়া দরকার। বিলাসবহুল জায়গায় থাকতে হলে, টাকা খরচা হবেই। সেই বুঝে বাড়ি খোঁজা দরকার। প্রয়োজনে চেনা কারও সঙ্গে শেয়ার করে থাকতে পারেন। তাতে খরচ কিছুটা হলেও কম হবে।

২. ঘর খুঁজবেন কীভাবে : স্থানীয় ব্রোকারদের পাল্লায় পড়লে অহেতুক একগাদা টাকা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই খবরের কাগজ, ইন্টারনেট, হোর্ডিং বা অন্যান্য বিজ্ঞাপনের সাহায্য নিতে পারেন। প্রয়োজনে স্থানীয় চেনা মানুষদের একবার জানিয়ে রাখুন।

৩. চাহিদা অনুযায়ী ঘর : টাকা খরচ যখন করতে হবে তখন ভেবেচিন্তে ঘর নেওয়া দরকার। নয়তো অহেতুক টাকা খরচ হবে। প্রয়োজন মতো বাড়ি দেখুন, যাবতীয় সুযোগ-সুবিধাগুলিও দেখে নিন।

৪. সব বিষয় দেখে নেওয়া : বাড়ির ভাড়া নেওয়ার আগে ঘরের সব কিছু দেখে নেওয়া জরুরি। রান্নাঘর, বাথরুম, জলের ব্যবস্থা, ইলেকট্রিক ব্যবস্থা, বাড়ির কাছাকাছি প্রয়োজন মতো দোকান হাট রয়েছে কি না দেখে নিন।

৫. বাড়ির মালিকের সঙ্গে আলাপ : অন্যের ভরসায় কখনই বাড়ি ভাড়া নেওয়া উচিত নয়। বাড়ির আসল মালিক কে, সেটা জানা জরুরি। সেইসঙ্গে সেই ব্যক্তির সঙ্গে পরিচয় করাও দরকার।

৬. পরিচয়পত্র : বাড়ির ভাড়া নেওয়ার আগে বাড়ির মালিকের কাছে নিজের স্বচ্ছ ধারণা তৈরি করা জরুরি। নিজের পরিচয়পত্র, কী করেন না করেন ইত্যাদি যাবতীয় বিষয়গুলি জানিয়ে রাখুন। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রও দিয়ে রাখতে পারেন।

৭. কনট্র্যাক্ট পেপার : বাড়ি ঠিক হয়ে গেলে অবশ্যই কনট্র্যাক্ট পেপার তৈরি করে নেওয়া জরুরি। সেই নথিতে যাতে সমস্ত কিছু স্পষ্টভাবে উল্লেখ থাকে সেটাও দেখে নিতে হবে। ইলেকট্রিক বিল থেকে জলের বিল ইত্যাদি খুঁটিনাটি সব বিষয়ের উল্লেখ রয়েছে কি না দেখে নিন।

৮. কনট্র্যাক্ট পেপারটি পরে নিন : কনট্র্যাক্ট পেপারটি ভালো করে পরার পরই তাতে সই করুন। যাতে ভবিষ্যতে এই নিয়ে আপশোস না করতে হয়, তাই এই বিষয়ে সতর্ক থাকা দরকার।

৯. কনট্র্যাক্ট পেপারে সই করার পর নিজের কাছে তার একটি ফোটোকপি রাখা খুব জরুরি।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট