বিশ্বকাপে ‘ম্যান অফ দ্যা টুর্নামেন্ট’ হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন কি সাকিব?

বিশ্বকাপে ‘ম্যান অফ দ্যা টুর্নামেন্ট’ হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন কি সাকিব?

৫৫০+ রান,১৪+ উইকেট যদি ৯ ম্যাচ শেষে সাকিবের ঝুলিতে থাকে।সাথে যদি আরেকটি বার ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হয় তাহলে ওর ম্যান অফ দ্যা সিরিজ হওয়ার চান্স কতটুকু যদি আমরা সেমি না খেলতে পারি।

লাল-সবুজের ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে নিশ্চয়ই প্রশ্নটি ডালপালা মেলছে। গ্রুপ পর্বে দুই ম্যাচ হাতে রেখে ৪৭৬ রানের পাশাপাশি ১০ উইকেট নেওয়া সাকিব আল হাসানকে ঘিরে এই প্রশ্নটি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও উঁকি দিচ্ছে।

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ক্রিকেটার মাইক হাসি ধারণা করছেন সাকিবই এবার ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট হবেন।

সোমবার ক্রিকইনফোর ম্যাচ পরবর্তী বিশ্লেষণে তিনি বলেন, ‘তার (সাকিবের) পরিসংখ্যান অবিশ্বাস্য। এখন পর্যন্ত আমার মনে হচ্ছে সে-ই টুর্নামেন্টের সম্ভাব্য সেরা খেলোয়াড়। আমি জানি না তার মতো আর কেউ সামনে দুটি সেঞ্চুরির পাশাপাশি এত উইকেট নিতে পারবে কি না।’

বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হওয়া অবশ্য অত সহজ নয়। এবার গ্রুপ পর্বে ম্যাচ বেশি থাকায় এই পুরস্কারটি আরও চ্যালেঞ্জিং হয়ে গেছে।

২০০৩ সালে শচীন টেন্ডুলকার ১১ ম্যাচে ৬৭৩ রানের পাশাপাশি দুই উইকেট নিয়ে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন। সেবার ভারত ফাইনাল পর্যন্ত যায়।

২০০৭ সালে সেরা খেলোয়াড় হন অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাকগ্রা। তিনি ২৬ উইকেট নেন। এই বছরও ফাইনাল পর্যন্ত একটি দল ১১টি করে ম্যাচ পায়।

আগের চার আসরে অলরাউন্ডারদের ভেতর থেকে শুধু যুবরাজ সিং টুর্নামেন্ট সেরা হয়েছেন। ২০১১ সালে ৯টি ম্যাচ খেলে ৩৬২ রানের পাশাপাশি ১৫ উইকেট নেন তিনি।

এবার গ্রুপ পর্বে প্রতিটি দল ৯টি করে ম্যাচ খেলবে। এরপর সেমিফাইনাল। অর্থাৎ ফাইনাল পর্যন্ত গেলে মোট ১১টি ম্যাচ পাবে একটি দল।

সেই হিসাবে সেরা হওয়ার দৌড়ে ডেভিড ওয়ার্নার (৪৪৭), জো রুট (৪২৪), অ্যারন ফিঞ্চ (৩৯৬), কেন উইলিয়ামসন (৩৭৩) এবং রোহিত শর্মা (৩২০) আছেন। বিস্ময়কর কিছু করে ফেললে লড়াইয়ে থাকতে পারেন বিরাট কোহলিও (২৪৪)।

সাকিবের উইকেট থাকায় তাদের জন্য অবশ্য সেরা হওয়াটা কঠিন হবে। পরের ম্যাচগুলোতে ধারাবাহিকতার চূড়ান্ত পরীক্ষা দিতে হবে। এই পরীক্ষা অবশ্য সাকিবেরও থাকছে। কারণ টুর্নামেন্টটার নাম বিশ্বকাপ!

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট