বৃষ্টির দিনে বিকেলের নাস্তায় মাটন শিঙাড়া

বৃষ্টির দিনে বিকেলের নাস্তায় মাটন শিঙাড়া

শিঙাড়া হল বাঙালির আজীবনের লোভ। মিষ্টির দোকানে গরম তেলে শিঙাড়া ভাজা হচ্ছে দেখলেই দাঁড়িয়ে পড়বে। এক ঠোঙা না কিনে বাড়িই ধুকবে না। আর যদি হয় মাটন শিঙাড়া। উফফ্! আর পায় কে? তা হলে চলুন, জেনে নিই মাটন শিঙাড়ার রেসিপি –

উপকরণ:

পুর বানাতে যা লাগবে –

  • ২০০ গ্রাম মাটন কিমা,
  • ১টি খোসা ছাড়ানো, ছোটো চৌকো করে কাটা আলু,
  • ১০টি কোয়া কুচি করে কাটা রসুন,
  • ১ স্টিক কুচি করে কাটা আদা,
  • ৬টি কুচি করে কাটা কাঁচা লঙ্কা,
  • ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো,
  • ১ চা চামচ লাল মরিচের গুঁড়ো,
  • ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো,
  • ১ কাপ সবুজ কড়াইশুঁটি,
  • ১ চামচ ভাজা মশলা,
  • ১ চা চামচ নুন,
  • স্বাদ মতো চিনি,
  • ২ চামচ সরষের তেল

বাইরের খোলা বানাতে যা লাগবে –

  • ২ কাপ ময়দা,
  • ১ চা চামচ কালো জিরা,
  • ১/২ চা চামচ নুন,
  • ১ চামচ ঘি,
  • ১ কাপ গরম পানি,
  • ভাজার জন্য সাদা তেল

পদ্ধতি :

আগে বানাতে হবে পুর। পুর ঠান্ডা করতে দিয়ে বানাতে হবে বাইরের খোলাটা।

পুর বানানোর পদ্ধতি –

একটি প্যানে সরষের তেল গরম করুন। তেল গরম হলে তাতে দিন রসুন ও কাঁচা লঙ্কা। ১-২ মিনিট সাঁতলে নিন। দারুণ সুন্দর গন্ধ বেরবে।

সেই মিশ্রণে যোগ করুন মটন কিমা। ঢিমে আঁচে নাড়ুন। তাতে দিন আলু ও কাঁচা লঙ্কা। আলু অর্ধেক ভাজা হওয়া অবধি নাড়ুন।

যোগ করুন হলুদ গুঁড়ো, লাল লঙ্কার গুঁড়ো, জিরা গুঁড়ো ও লবণ। ভালো করে মেশান।

তাতে কড়াইশুঁটি দিন। উপরে ছড়িয়ে দিন ভাজা মশলা। নাড়ুন। হয়ে গেলে অন্য একটি পাত্রে সরিয়ে ঠান্ডা হতে দিন।

খোলা বানানোর পদ্ধতি – 

একটি কড়াইয়ে ময়দার মধ্যে ঘি, কালো জিরা ও লবণ দিয়ে মাখুন। মাখা শক্ত করতে একটু গরম জল দিন। ময়দা মাখা হয়ে গেলে ১০ মিনিট রেখে দিন।

ময়দা মাখা থেকে ছোটো ছোটো লেচি কেটে গোল করে একে একে বেলুন। মাঝখান দিয়ে কেটে দু-ভাগ করুন।

কাটা অংশগুলি দিয়ে শিঙাড়ার শঙ্কু তৈরি করুন। পুর পুড়ে মুখটি হাতে চিপে বন্ধ করে দিন।

একটি কড়াইয়ে অনেকটা তেল গরম করে তাতে একে একে শিঙাড়াগুলি ছেড়ে দিন। কড়া করে ভাজুন।

সবক’টা শিঙাড়া ভাজা হয়ে গেলে প্লেটে সাজিয়ে টোম্যাটো ও চিলি সসের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট