ভক্তকে ‘ভারত ছাড়তে’ বলে সমালোচনার ঝড়ে পড়েছেন কোহলি

ভক্তকে ‘ভারত ছাড়তে’ বলে সমালোচনার ঝড়ে পড়েছেন কোহলি

আবারও বিতর্কের জন্ম দিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এবার মাঠের ঘটনায় নয়, মাঠের বাইরে বেফাঁস মন্তব্য করে এখন বিপাকে পড়ে গেছেন তিনি। নিজের নতুন অ্যাপে এক ভিডিও বার্তায় কোহলি বলেছিলেন- যে ভারতীয়রা ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের খেলা দেখতে বেশি উপভোগ করেন, তাদের দেশ ছেড়ে চলে যেতে । এরপরই শুরু হয়েছে সমালোচনার ঝড়।

সোমবার জন্মদিন ছিল কোহালির। ৩০তম জন্মদিনে ‘বিরাট কোহলি অ্যাপ’ নামে নিজের একটি অ্যাপ লঞ্চ করেন কোহলি। সেই অ্যাপের প্রচারণায় একটি ভিডিওতে দেখা যায় ভক্তের সমালোচনা করছেন ভারত অধিনায়ক।

সেই সময়ই এক ভিডিওতে খোঁচা দেওয়া নানা টুইটের প্রসঙ্গ তুলে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। যেমন ইনস্টাগ্রামে এক ব্যক্তি তাকে ‘ওভার-রেটেড ব্যাটসম্যান’ হিসেবে চিহ্নিত করেন। লেখেন, কোহালির ব্যাটিংয়ে তিনি ‘স্পেশ্যাল’ কিছু দেখছেন না। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের থেকে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের দেখতে পছন্দ করার কথাও লেখেন সেই ব্যক্তি।

এর পরিপ্রেক্ষিতেই ওই মন্তব্য করেন কোহালি। তিনি বলেন,‘আমার তো মনে হয় আপনার ভারতে থাকা উচিত না। আপনার উচিত অন্য কোথাও গিয়ে থাকা। কেন আপনি আমাদের দেশে বাস করছেন আর অন্য দেশকে ভালোবাসছেন? আপনি আমাকে পছন্দ না করলেও আমার কিছু এসে-যাবে না। কিন্তু আমার মনে হয় আপনার এদেশে বসবাস করে অন্য দেশের কিছু পছন্দ করা উচিত নয়। নিজের অগ্রাধিকার ঠিক করুন আপনি।’

সেই ভিডিও দ্রুতই ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তবে কোহলির এমন মন্তব্য পছন্দ হয়নি অনেকেরই। তাকে নিয়ে নানা সমালোচনায় মেতেছেন অনেকেই। টুইটারে ধুয়ে দেয়া হচ্ছে কোহলিকে। কে কাকে পছন্দ করবে তা বেছে দেয়ার দায়িত্ব কোহলিকে দেয়া হয়েছে কিনা সেটা নিয়ে অনেকে তুলেছেন প্রশ্ন!

একভক্ত টুইটারে লিখেছেন, ‘আমাদের গণতন্ত্রে কখনোই বলা নেই যে, আমরা অন্য দেশকে পছন্দ করতে পারবো না। আমরা ভারতীয় বলে অন্য দেশকে ঘৃণা করতে হবে সেটা কোহলিকে কে বলেছে?’

আরেকজন লিখেছেন, ‘কে দেশে থাকবে, না চলে যাবে, সেটা তোমার দায়িত্ব নয় কোহলি!’ ‘আমি আমেরিকা চলে যাবো কারণ ক্রিকেট আমি দুচোখে দেখতে পারি না!’ আরেকজনের ক্ষোভের আগুন ঝরেছে এভাবেই।

একজন লেখেন, ‘আমি নিজের অগ্রাধিকার ঠিক করে নিয়েছি। আমি আমেরিকায় চলে যাব, কারণ আমি ক্রিকেটকেই ঘৃণা করি।’

আর একজন লেখেন, ‘কোনো নাগরিককে দেশে ছেড়ে চলে যেতে বলার অধিকার তোমার নেই বিরাট।’

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট