ভারতীয় ভিসা আবেদনে নতুন কেন্দ্র উদ্বোধন

ভারতীয় ভিসা আবেদনে নতুন কেন্দ্র উদ্বোধন

ঢাকা সফররত ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং শনিবার (১৪ জুলাই) সকালে রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কে ১৮ হাজার ৫০০ বর্গফুট আয়তনের একটি নতুন, সমন্বিত ও অত্যাধুনিক ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন। এই কেন্দ্র থেকে ই-টোকেন ছাড়াই ভিসা নেওয়া যাবে।

এ ছাড়া রাজধানী ঢাকার সকল ভিসা আবেদন কেন্দ্রই পর্যায়ক্রমে যমুনা ফিউচার পার্কের ভিসা আবেদন কেন্দে প্রতিস্থাপিত হবে।

ঢাকার ভারতীয় দূতাবাস জানিয়েছে, যমুনা ফিউচার পার্কের নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রে ঢাকায় বিদ্যমান সকল ভিসা আবেদন কেন্দ্র (মতিঝিল, উত্তরা, গুলশান এবং মিরপুর সড়ক) প্রতিস্থাপিত হবে। একই সঙ্গে ভারতীয় ভিসা আবেদন জমা দেওয়ার জন্য বিদ্যমান ই-টোকেন (সাক্ষাৎকার) ব্যবস্থাও প্রত্যাহার করা হবে।

মতিঝিল ও উত্তরায় অবস্থিত ভিসা আবেদন কেন্দ্রসমূহ আগামী ১৫ জুলাই থেকে যমুনা ফিউচার পার্কের নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রে প্রতিস্থাপিত হবে। বাকি দুটি ভিসা আবেদন কেন্দ্রও (গুলশান এবং মিরপুর রোড) ৩১ আগস্ট ২০১৮ এর মধ্যে নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রে স্থানান্তরিত হবে।

যমুনা ফিউচার পাকের্র নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্র একটি মডেল ভিসা কেন্দ্র হবে। ১৮ হাজার ৫০০ বর্গফুট বাণিজ্যিক এলাকায় অবস্থিত এই ভিসা আবেদন কেন্দ্রে থাকবে কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত টোকেন ভেন্ডিং মেশিন (প্রত্যাশিত প্রতীক্ষা সময় নির্দেশিত হবে), আরামদায়ক বসার ব্যবস্থা ও শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অপেক্ষা করার স্থান, কফি এবং কোমল পানীয় ভেন্ডিং মেশিন, খাবার দোকান ও আবেদন জমা দেওয়ার জন্য ৪৮টি কাউন্টার। জ্যেষ্ঠ নাগরিক, নারী, মুক্তিযোদ্ধা ও ব্যবসায় ভিসা আবেদনের জন্য আলাদা কাউন্টার থাকবে।

একটি বিশেষ সহায়তা ডেস্ক এবং প্রিন্টিং, ফটোকপি ইত্যাদি সেবাগুলির জন্য কাউন্টার থাকবে যেখানে মূল্য পরিশোধ করে সেবাগুলো পাওয়া যাবে। একটি প্রশস্ত এবং নিরাপদ বিপণী কেন্দ্রে নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্র হওয়ায় আবেদনকারীদের আরামদায়ক ও নিরবচ্ছিন্ন ভিসা সেবা দেওয়া সম্ভব হবে এবং আবেদনের জন্য অপেক্ষা করার সময়ও কমবে বলে ভারতীয় দূতাবাস জানাচ্ছে।

যমুনা ফিউচার পার্কে ভিসা আবেদন সেবাসমূহ সমন্বয় এবং সুযোগ সুবিধাসমূহ ভারতীয় ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া আরও সুদৃঢ় করতে এবং ভারত ও বাংলাদেশের মানুষে মানুষে সম্পর্ক শক্তিশালী করার জন্য ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্কের সহযোগিতায় ভারতীয় হাই কমিশনের অব্যাহত প্রচেষ্টারই প্রতিফলন বলে বার্তায় উল্লেখ করা হয়।

উদ্বোধনের সময় ভারতের হাইকমশিনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা ও যমুনা গ্রুপের কর্ণধার নুরুল ইসলাম বাবুলসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট