ভার্চুয়াল জাদুঘর নির্মানের উপর গুরুত্বারোপ: আসাদুজ্জামান

ভার্চুয়াল জাদুঘর নির্মানের উপর গুরুত্বারোপ: আসাদুজ্জামান

জাতীয় জাদুঘরকে আরও আধুনিক ও বিজ্ঞানসম্মত করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে জানিয়েছেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে সুফিয়া কামাল অডিটোরিয়ামে আন্তর্জাতিক জাদুঘর দিবসের এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এই  কথা জানান। জাতীয় জাদুঘর ও আইকম বাংলাদেশ এ সেমিনারের আয়োজন করে।

তিনি জানান, দর্শনার্থীদের সঙ্গে জাদুঘরের সম্পৃক্ততা আরও বাড়ানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। অবকাঠামো উন্নয়ন করে পর্যটন শিল্পকে গতিশীল করে অর্থনৈতিক গতিশীলতা বাড়াতে সকলের সমন্বিত উদ্যোগের ওপর তিনি জোর দেন।

মন্ত্রী জানান, বর্তমান সরকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য রক্ষায় জাতীয় ইতিহাস জাদুঘর (ন্যাশনাল হিস্ট্রি মিউজিয়াম) নামে আরেকটি জাদুঘর নির্মাণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

আসাদজ্জামান নূর জানান, বর্তমানে ও প্রাচীনকালে যে প্রত্নতত্ত্ব খুঁড়ে উদ্ধার করা হয়েছে তা স্থানাভাবে জাতীয় জাদুঘরে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। বর্তমানে জাদুঘরে ২০ ভাগের একভাগ প্রত্নতত্ত্ব সামগ্রী প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে। তাই জাদুঘর সম্প্রসারণ করা হচ্ছে।

এসময় তিনি ভার্চুয়াল জাদুঘর নির্মানের উপর গুরুত্বারোপ করে জানান, ব্যস্ত মানুষেরা যাতে ঘরে বসেই দেশের কৃষ্টি কালচার ও ইতিহাস সর্ম্পকে জানতে পারেন সেজন্য সরকার এ ধরনের জাদুঘর তৈরির পরিকল্পনা করছে।

তিনি বলেন, সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তিপর্যয়ে মুদ্রা, টিকিট ও বিশেষ ব্যক্তি¦ত্বের জীবন ও কর্ম রক্ষার মধ্য দিয়ে ও বিভিন্ন ধরনের জাদুঘর বা সংগ্রহশালা নির্মাণ করে যাচ্ছে। এটি একটি ইতিবাচক দিক।

বাংলাদেশ জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন সাবেক সচিব ও সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার এম.আজিজুর রহমান।‘মিউজিয়াম এন্ড কালচারাল ল্যান্ডস্কেপ’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের প্রফেসর সুফী মোস্তাফিজুর রহমান।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ইউনির্ভাসিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক এর প্রফেসর আবুদ সাঈদ এম আহমেদ।

জাদুঘরের মহাপরিচালক জানান, যুগের সাথে তাল মিলিয়ে জাদুঘরকে আধুনিক ও মানসম্মত করে গড়ে তুলতে নানা কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করার কাজ এগিয়ে চলছে।

 

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক