ভিকি জাহেদের নতুন স্বল্পদৈর্ঘ্য ‘রেইন লাভ’

ভিকি জাহেদের নতুন স্বল্পদৈর্ঘ্য ‘রেইন লাভ’

শিগগিরই অনলাইনে আসছে ভিকি জাহেদের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘রেইন লাভ’। মুক্তি পাবে অডিও-ভিডিও লেবেল সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে।

প্রতিষ্ঠানটি এবারই প্রথম নিজস্ব তত্ত্বাবধানে কোনো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করলো।

এ প্রসঙ্গে সিএমভি’র কর্ণধার এস কে সাহেদ আলী পাপ্পু বলেন, ‘‘ভিকি জাহেদের সঙ্গে আমরা বেশ কিছু মিউজিক ভিডিও প্রজেক্ট করেছি। যার প্রায় সবগুলোই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। তবে চলচ্চিত্রের কাজ এত দিন করা হয়নি। তাই ‘রেইন লাভ’-এর মাধ্যমে সিএমভি ও ভিকি জাহেদের নতুন যাত্রা শুরু হলো এবার।

আশা করছি, আমাদের এই যৌথ প্রচেষ্টা দর্শকদের ভালো লাগবে।”

‘রেইন লাভ’-এর প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন নাদিয়া খানম ও নবাগত সাজিব জামান।

নির্মাতা ভিকি বলেন, “নতুন মুখ উপহার দিচ্ছি এবার। গল্পের প্রয়োজনেই নতুন মুখ খুঁজছিলাম। সাজিবকে প্রথম দেখি একটি বিলবোর্ডে। দেখে মনে হলো, এ হতে পারে আমার চলচ্চিত্রের আসল নায়ক। এরপর অডিশন এবং সিলেক্ট হলো। আমার বিশ্বাস ওর অভিনয় সবার ভালো লাগবে।”

ছবির গল্প প্রসঙ্গে ভিকি আরও জানান, ‘রেইন লাভ’ হচ্ছে মাঘের শীতে বৃষ্টির গল্প। আর এই অদ্ভুত-অসময়ে ঝরে পড়া বৃষ্টি দুটি সাধারণ ছেলে-মেয়ের জীবনে অসাধারণ কিছু মুহূর্তের সৃষ্টি করে। যে মুহূর্তগুলো ওদের জীবন পাল্টে দেয়। কীভাবে পাল্টে দেয়, সেটি স্পষ্ট হবে ছবিটি দেখলে।

‘রেইন লাভ’ প্রসঙ্গে অভিনেত্রী নাদিয়া খানম বলেন, ‘‘ভিকি ভাইয়ার সঙ্গে এটা আমার পঞ্চম স্বল্পদৈর্ঘ্য। এর মধ্যে ‘মায়া’, ‘দুরবিন’ ও ‘আজ আমার পালা’ নামের কাজগুলো দর্শক অনেক পছন্দ করেছে। এবারের গল্পটি অনেক সুন্দর। গল্পের ক্লাইমেক্স দর্শকদের ভাবাবে।”

‘রেইন লাভ’-এর চিত্রগ্রাহক হিসেবে কাজ করছেন বিদ্রোহী দীপন, সম্পাদনা ও রঙে ছিলেন সাইফ রাসেল, সংগীত পরিচালনা করেছেন মাহামুদ হায়াত অর্পণ এবং শিল্পনির্দেশক ছিলেন জাহিদ প্রীতম। সাউন্ড ডিজাইন ও ভিএফএক্স করছেন অর্ণব হাসনাত, প্রধান সহকারী পরিচালক ছিলেন মুহতাসিম ত্বকী, কস্টিউমে ছিলেন আলভিরা তাসনিম এবং লাইন প্রোডিউসার হিসেবে ছিলেন আদিল খান।

‘রেইন লাভ’ মুক্তি পাচ্ছে ২৫ ফেব্রুয়ারি। এদিন বিকালে সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক পেইজ ছাড়াও বেশ ক’টি ভিডিও শেয়ারিং সাইটে এটি উন্মুক্ত হবে।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট