‘‘মহিলারা আমাকে পাত্তাই দিত না’’, কেন এমন আক্ষেপ ‘লেডি কিলার’ রণবীরের

‘‘মহিলারা আমাকে পাত্তাই দিত না’’, কেন এমন আক্ষেপ ‘লেডি কিলার’ রণবীরের

কখনও বাজিরাও, কখনও খলজি, আবার কখনও রিকি বহেল, তাঁর করিশমায় ঘায়েল মহিলা মহল। অ্যাওয়ার্ড সেরিমনিতে নিজে সং সেজে মাঝে মাঝে দেখা দেন তিনি। কিন্তু পর্দায় তাঁর দিক থেকে চোখ ফেরানো মোটেই সহজ নয়। তাই মহিলা ব্রিগেড রণবীর সিংহ বলতে অজ্ঞান।

শুধু তো অভিনেতা রণবীর নয়। প্রেমিক রণবীরও বাস করেন রমণীদের মনে। যেভাবে প্রেয়সী দীপিকা পাডুকোনকে প্রেমে আগলে রাখেন রণবীর, তাতে তাঁর অনুরাগিণীদের মনে ঘুরপাক খায়, ‘‘আমার প্রেমিকও যদি রণবীরের মতো হতো।’’

অভিনেতা রণবীর ও মানুষ রণবীর সব মিলিয়ে তাই এবারও ‘মোস্ট ডিজায়রেবল ম্যান’ হয়েছেন। এর আগে ২০১৫-তেও এই একই খেতাব জিতেছিলেন তিনি।

কিন্তু এসবের পরেও রণবীর জানিয়েছেন, মহিলারা নাকি আগে পাত্তাই দিতেন না তাঁকে। তবে তা যে বেশ অনেক বছর আগের কথা, তা জানিয়েছেন রণবীর। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে তিনি জানান, নবম শ্রেণি পর্যন্ত তিনি খুব স্থূলকায় ছিলেন। তিনি বলেন, ‘‘আমি ভিতর থেকে এখনও ওই মোটা বাচ্চাটাই রয়ে গেছি, যে মহিলাদের কোনও পাত্তা পেত না।’’ কিন্তু কেন এমন বললেন রণবীর? তাঁর মতে, ওই সময়গুলোই তাঁকে আজকের রণবীর সিংহ হতে সাহায্য করেছে। তাই সারাজীবন এমনই থেকে যেতে চান তিনি।

নিজের কৃতিত্বে এত দূর এসেও এখনও মাটিকে ভুলে যেতে চান না। আর তাতেই কুপোকাৎ বিটাউনের সেরা অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন। এক সময়ে রণবীর কপূর যতটা ক্ষত তৈরি করেছিলেন নায়িকার মনে, রণবীর সিংহের সঙ্গে ঠিক ততটাই ভাল রয়েছেন দীপিকা। তাই ‘রানি’ দীপিকার মনে এখন শুধুই ‘সিংহ’ রাজার স্থান। রণবীরের কথায়, ‘নিজেকে সবথেকে সুন্দর নায়ক হিসেবে দাবি করি না। কিন্তু সবথেকে ডিজায়রেবল হতে পেরে সত্যিই খুব ভাল লাগে।’’

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট