মিন্নির মামলার বৃত্তান্ত চেয়েছেন হাইকোর্ট

মিন্নির মামলার বৃত্তান্ত চেয়েছেন হাইকোর্ট

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় তার গ্রেফতারকৃত স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন আবেদনের শুনানি হয়েছে সোমবার। তবে, শুনানিতে জামিনের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত দেননি আদালত। মিন্নিকে পুলিশ লাইনে নেওয়া, জিজ্ঞাসাবাদ, গ্রেফতার ও পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিং সংক্রান্ত তথ্য জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। এসব তথ্য যুক্ত করে মঙ্গলবারের মধ্যে মিন্নির আইনজীবীকে সম্পূরক আবেদন দিতে বলেছেন আদালত। একই সঙ্গে আদালত কাল বেলা দুইটা পর্যন্ত মিন্নির জামিন চেয়ে করা আবেদনের শুনানি মুলতবি করেছেন।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ সোমবার আয়শার জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে পরবর্তী সময় ধার্য করেন। কাল বেলা দুইটায় পরবর্তী শুনানির জন্য সময় রেখেছেন আদালত। আদালতে আয়শার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না। সঙ্গে ছিলেন এম মঈনুল ইসলাম ও মাক্কিয়া ফাতেমা ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসেন।

গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাত শরীফকে। ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে দেখা যায়, সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজী তাকে রামদা দিয়ে কোপাচ্ছে। ঘটনার পরদিন রিফাত শরীফের বাবা আবদুল হালিম ১২ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

গত ২ জুলাই নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। রিফাত ফরাজী গ্রেফতারের পর এখন কারাগারে। এই মামলায় গত ১৬ জুলাই আয়শাকে বরগুনার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে দিনভর জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার দেখানো হয়। মিন্নির জামিন চেয়ে বরগুনার বিচারিক হাকিম আদালতে করা আবেদন গত ২১ জুলাই নাকচ হয়। এরপর বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জামিন চাওয়া হলে গত ৩০ জুলাই সেটিও নামঞ্জুর হয়। এরপর মিন্নির আইনজীবীরা পরে উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট