মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ নিয়ে যা বললেন সাবেক ‘মিস আয়ারল্যান্ড’ প্রিয়তি

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ নিয়ে যা বললেন সাবেক ‘মিস আয়ারল্যান্ড’ প্রিয়তি

গত রোববার হয়ে গেলো ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৮’ গ্র্যান্ড ফিনালে। আর এ বছরের মুকুট পড়েছেন জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী। কিন্তু মিস ওয়ার্ল্ড নিয়ে বিতর্ক যেন পিছুই ছাড়ছে না।

বিচারকদের সহজ কিছু প্রশ্নে অংশগ্রহণকারীদের উত্তর নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে এ নিয়ে চলছে বিতর্ক-সমালোচনা।

যেখানে ‘H2o’ নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে রেস্টুরেন্ট বলায় সমালোচনা করছে নেটিজেনরা। আর এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেম ফেসবুকে লিখেছেন মিস আয়ারল্যান্ড’ খ্যাত বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি।

তিনি তার ফেসবুকে লিখেছেন, একটা দেশের education system যখন collapse করা, তখন একটি মেয়ে প্রথমবারের মতো এতো এতো দর্শকের সামনে, এতো এতো লাইটস, ক্যামেরার সামনে একটা উত্তর ভুল দেয়া বা ঠিক মতো না দেয়া বা না জানা কি অনেক বড় পাপের বা দোষের? কোন রকমের Public Speaking experience ছাড়া হঠাৎ করে স্টেজে পাবলিকের সামনে কথা বলা কি এতোই সোজা? আপনারা কয়জন গিয়ে কথা বলতে পারবেন, কখনো ভেবে দেখেছেন? বিচারকদের ২/১ জন নিজেরাও কিছু ভুল বলেছেন, তা না হয় বাদই দিলাম human error হিসেবে। Brain Glitching আমাদের সবারই হয়, টিভি তে বা কোন শো বলে কেও ১০০% নিখুঁত বা পারফেক্ট হতে পারে না, এডিটিং ছাড়া।

আমি আগেও কয়েক জায়গায় বলেছি, আমাকে হঠাৎ করে কেউ প্রশ্ন করলে জানা উত্তরও আমি ভুলে যাই, এই সমস্যা ছোটবেলা থেকেই, যার কারণে স্কুলে, টিচারদের কাছে প্রচুর মার খেতাম, তাই বলে আমার এতদিনে যা যা শিখেছি, অর্জন করেছি, সব কি জিরো?

বিচারক তার প্রশ্ন তিনি তৈরি করে এনেছেন বা ভেবেছেন কি প্রশ্ন করবেন কিন্তু একজন প্রতিযোগীর মাথার রগের ভিতরে রক্ত দৌড়াতে থাকে, প্রশ্ন কি হতে পারে বা কোথা থেকে হতে পারে, তখন ব্রেইন এতো ডিরেক্সন পেয়ে নিজেই শুন্য হয়ে বসে থাকে, ব্যাপারটি কখনো ভেবে দেখেছেন?

আপনাদের সময় দিতে হবে তৈরি হওয়ার, অভ্যস্ত হওয়ার।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট