মোবাইল ফোন ব্যবহারে স্বাস্থ্য ঝুঁকি

মোবাইল ফোন ব্যবহারে স্বাস্থ্য ঝুঁকি

আজকাল মোবাইলের রেডিয়েশন বা তেজষ্ক্রিয়তার কথা খুবই শোনা যায়। মোবাইল থেকে নির্গত রেডিয়েশন মানুষের দেহের ক্ষতি করতে পারে, বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে বেশি ক্ষতিকর। দৃশ্যমান কোনো কিছু আপনার ক্ষতি করলে সহজেই বুঝতে পারেন এবং তার প্রতিকার করে থাকেন। কিন্তু যে ক্ষতি দেখা যায় না, প্রাথমিকভাবে বোঝা যায় না— তাকে বলে নীরব ঘাতক বা সাইলেন্ট কিলার। মোবাইলের রেডিয়েশনও তেমনই। মোবাইলে ১৫-২০ মিনিট কথা বলার পর দেখবেন মাথা ঝিম ঝিম করছে, অস্থিরতা বেড়ে গেছে। একটানা ১ ঘণ্টা বা তার অধিক কথা বললে দেখবেন মাথাব্যথা করছে। শিশুদের মোবাইল থেকে দূরে রাখুন। শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে বলে ক্ষতির পরিমাণও বেশি। যা ব্রেন ক্যান্সারে গিয়ে ঠাঁই নিতে পারে। রেডিয়েশনের হাত থেকে রক্ষা পেতে করণীয়—

যেভাবে রেডিয়েশন থেকে বাঁচবেন

– মোবাইল বুক পকেটে রাখবেন না।

– কথা বলার সময় এক কানে ধরে কথা বলবেন না। দুই কান ব্যবহার করুন।

– ব্যাটারির চার্জ কমে গেলে কথা না বলাই ভাল। তখন রেডিয়েশনের পরিমাণ বেড়ে যায়।

– প্রয়োজনে হেডফোন ব্যবহার করুন।

– মোবাইল পাশে নিয়ে ঘুমাবেন না।

– ভাল ব্র্যান্ডের মোবাইল ব্যবহার করুন। যেন-তেন ব্র্যান্ডের মোবাইলে রেডিয়েশন বেশি হয়।

– একটানা ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলা থেকে বিরত থাকুন।

– প্যান্টের পকেটে মোবাইল রাখাও নিরাপদ নয়। কোমরে বা হাতে রাখুন।

এ সব কিছু বিবেচনা করে অভিভাবক ও শিক্ষকদের উচিত সন্তান ও শিক্ষার্থীদের মোবাইল ব্যবহারে সচেতন করা। সেই সঙ্গে মোবাইলে কথা বলার আদব-কায়দাও জেনে নেওয়া উচিত।

আরো কিছু টিপস

– মোবাইলের স্পিকার অন করে কথা বলার চেষ্টা করুন। এতে মাথা মোবাইল থেকে দূরে থাকে। যদিও এর কিছু ক্ষতিকারক দিক আছে। – সম্ভব হলে ইয়ারবাডস ব্যবহার করুন। এতে মাথাকে মোবাইল থেকে দূরে রাখা রাখা যায়।

– গাড়ি, ট্রেন ও বিমানে মোবাইলের ব্যবহার যত সম্ভব কম করুন। মোবাইল ফোন লোহা নির্মিত জায়গায় বেশি শক্তি ক্ষয় করে। আর অনেক বেশি রেডিয়েশন ছড়ায়।

– বাড়িতে মোবাইলের পরিবর্তে ল্যান্ডলাইন ব্যবহারের চেষ্টা করুন। কর্ডলেস ল্যান্ডফোন মোবাইল থেকে কম রেডিয়েশন ছড়ায়।

– মোবাইলের জন্য কাভার কিনুন। এটা ফোনের রেডিয়েশন ছড়ানোকে কিছুটা হলেও রোধ করবে।

– যদি মেসেজের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় কথা সারা যায়, তবে মেসেজই ভাল। এতে অন্তত মোবাইলটা আপনার মাথার কাছ থেকে দূরে থাকবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট