যে কারণে দুঃস্বপ্ন পিছু ছাড়ে না!

যে কারণে দুঃস্বপ্ন পিছু ছাড়ে না!

ঘুমের মধ্যে কখনো চিৎকার করে উঠছেন। কখনো কুঁকিয়ে অথবা গোঙানি দিয়ে ঘুম ভাঙছে। প্রায় প্রতিদিন রাতেই দুঃস্বপ্ন হানা দিচ্ছে। ভয়ের স্বপ্ন, প্রিয়জনকে নিয়ে অমঙ্গলের স্বপ্ন, অথবা অজানা পরিস্থিতিতে অসম্মনিত হওয়ার স্বপ্ন সকালের প্রথম আলোটাকেও বিষবৎ করে তুলছে।

এমন পরিস্থিতে আপনি খুঁজছেন মুক্তির উপায়। বৈদিক বাস্তু শাস্ত্র জানাচ্ছে ৮টি বিধি মেনে চললে মুক্ত থাকা যায় দুঃস্বপ্নের বেড়াজাল থেকে। অন্য দিকে, মনোবিদরা জানান, স্বপ্ন আসে পরিপার্শ্ব থেকেই। তাই পরিপার্শ্বকে ইতিবাচক রাখলে স্বপ্নের চরিত্র নির্ধারণও আপনার হাতে চলে আসতে পারে। আর বাস্তু বিষয়টিই পরিপার্শ্ব সংক্রান্ত। সুতরাং, সেদিক থেকে দেখলে এই পরামর্শ সবিশেষ গুরুত্বপূর্ণ

নিয়মিত এগুলো মেনে চলুন ফলাফল মিলবে।

১. আপনার শোওয়ার জায়গা, তা খাটই হোক অথবা মেঝেতে পাতা বিছানাই হোক, যেন কো‌নও ভাবেই বাথরুমের কাছাকাছি না হয়। বাথরুমের নেতিবাচক শক্তি আপনার স্বপ্নকে কু-দিকে ঠেলে দিতে পারে।

২. ঘরে বা ঘরের বাইরে জানলার কাছে যদি তুলসী বৃক্ষ থাকে, তা হলে দুঃস্বপ্ন দূরে থাকবে।

৩. আপনার বক্স খাটের খোপে চাল-ডাল-মশলাপাতি ভুলেও রাখবেন না।

৪. রাস্তায় ব্যবহার্য জুতে বিছানার কাছে আনবেন না। এতে বিপদ বাড়বে।

৫. ঘর মোছার সময়ে জলে খানিকটা নুন ফেলে দেখুন, দুঃস্বপ্ন থেকে মুক্ত আসবেই।

৬. বিছানার চাদরে কার্টুন বা কোনও মানুষের ছবি থাকলে তা দুঃস্বপ্নকে ডেকে আনে।

৭. বিছানার কাছে জলপাত্র রাখুন। এটি শুভশক্তিকে আহ্বান করে।

৮. নিয়মিত দুঃস্বপ্ন দেখলে বালিশের নীচে একটি পরিচ্ছন্ন কাপড়ে মুড়ে কয়েকটি এলাচ রাখুন। দূর হবেই দুস্বপ্ন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট