যৌন হেনস্থার অভিযোগ: গুগলের ৪৮ কর্মী ছাটাই

যৌন হেনস্থার অভিযোগ: গুগলের ৪৮ কর্মী ছাটাই

এবার যৌন হয়রানীর অভিযোগে অন্তত ৪৮ জন কর্মকর্তাকে বহিস্কার করেছে প্রযুক্তি দুনিয়ার সবচেয়ে প্রভাবশালী প্রতিষ্ঠান ‘গুগল’। এর মধ্যে শীর্ষ পর্যায়ের ১৩ জন ম্যানেজারও রয়েছেন।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী সুন্দর পিশাই কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে লেখা এক চিঠিতে জানান, ‘অনৈতিক আচরণের জন্য গুগল কঠোর পদক্ষেপ নেবে’।

চিঠিটি মূলত নিউইয়র্ক টাইমস গুগলের অ্যানড্রয়েড বিভাগের এ্যান্ডি রুবিনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন প্রকাশের প্রেক্ষিতে লেখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায়, অনৈতিক অভিযোগ থাকা পরপরই রুবিনকে প্রায় ৯০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তিতে গুগল থেকে স্বেচ্ছায় সরে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

যদিও রুবিনের এক মুখপাত্র বরাবরই এ ধরণের অভিযোগ সত্য নয় বলে জানিয়ে এসেছেন। স্যাম সিংগার নামের ঐ মুখপাত্র জানান, গুগল থেকে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত মূলত ২০১৪ সাল থেকেই। রুবিনের নতুন একটি প্রতিষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা চলছিল।

যৌন হেনস্তার অভিযোগ থাকলেও তাকে কেন ‘বীরোচিত বিদায়’ দেয়া হচ্ছিল সেটি নিয়েই প্রশ্ন তোলে নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনটি। সুন্দর পিশাই বলেন, নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনটি মেনে নেয়া সত্যিই কঠিন। গুগল বরাবরই নিরাপদ কর্ম পরিবেশ নিশ্চিত করার ব্যাপারে সচেতন।

তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের নিশ্চিত করতে চাই যে যৌন হয়রানী এবং অনৈতিক আচরণের প্রতিটি অভিযোগ গুগল খুব গুরুত্বের সাথে পর্যালোচনা করে। এবং তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেয়’।স্বেচ্ছা পদত্যাগের আওতায় গত দুই বছরে কাউকেই গুগল থেকে বিদায় করা হয় নি ।

নিউইয়র্ক টাইমস তার প্রতিবেদনে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গুগলের দুই নির্বাহীর বরাত দিয়ে জানায় যে ২০১৩ সালে রুবিন প্রতিষ্ঠানটির এক নারীকে একটি হোটেলে ডেকে নিয়ে যৌন হয়রানী করে।

গুগল এই অভিযোগের প্রমাণ পাবার পর কোন শাস্তি না দিয়ে তাকে গুগল থেকে সরে যেতে বলে। যদিও রুবিনের দাবি ,অভিযোগের কারণে নয় তিনি ব্যক্তিগত কারণেই গুগল ছাড়তে চেয়ছিলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট