রাজশাহীতে মোটরসাইকেল সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল তিনজনের

রাজশাহীতে মোটরসাইকেল সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল তিনজনের

রাজশাহীর মোহনপুর ও গোদাগাড়ী উপজেলায় রবিবার সকালে পৃথক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন।

সকাল পৌনে ৯টার দিকে উপজেলার মৌগাছি ইউনিয়নের তেঁতুলতলায় থাকা যমুনা জুটমিলের সামনে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় চালক ও পথচারী নিহত হন।

তারা হলেন- রাজশাহী মহানগরীর শাহ মখদুম থানা এলাকার নাজমুল হোসেনের ছেলে ও মোটরসাইকেল চালক সিফাত হোসেন (২০) এবং মোহনপুর উপজেলার কেশরহাটের মৃত বরকত আলীর ছেলে খায়ের আলী (৫০)।

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহমেদ জানান, মোটরসাইকেল চালক সিফাত পথচারী খায়ের আলীকে ধাক্কা দিলে তিনি গুরুতর আহত হন। আর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় ছিটকে পড়েন মোটরসাইকেল চালকও। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় তাদের দুজনকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। জরুরি বিভাগে নেয়ার পরপরই তাদের দুজনের মৃত্যু হয়।

নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রামেক হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে গোদাগাড়ী উপজেলায় ইঞ্জিনচালিত ট্রলি-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে মাসুদ হায়দার (৩৫) নামে এক চালক নিহত হয়েছেন। বেলা ১১টার দিকে উপজেলার গোদাগাড়ী-আমনুরা সড়কের লালবাগ হ্যালিপাড নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত মাসুদ হায়দার গোদাগাড়ী পৌর এলাকার রামনগর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ইলিয়াস আলীর ছেলে। তিনি ইন্টারনেট ক্যাবল সংযোগের ব্যবসা করতেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে গোদাগাড়ী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাইরুল ইসলাম জানান, মাসুদ একটি মোটরসাইকেলে চড়ে গোদাগাড়ীর দিকে আসছিল। এসময় আমনুরাগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে মোটরসাইকেল আরোহী মাসুদ রাস্তায় ছিটকে পড়ে। সেসময় ট্রলিটি পালিয়ে যায়।

পরে গোদাগাড়ী ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা উদ্ধার করে গোদাগাড়ী ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট