রাশিয়ার শপিং মলে আগুন: নিহত বেড়ে ৫৩, নিখোঁজ ১৬

রাশিয়ার শপিং মলে আগুন: নিহত বেড়ে ৫৩, নিখোঁজ ১৬

রাশিয়ার কেমেরোভো শহরে শপিং মলে আগুন লাগার ঘটনায় প্রাণহানির সংখ্যা বেড়ে ৫৩-এ দাঁড়িয়েছে। এখনও নিখোঁজ রয়েছে ১৬ জন। ধারণা করা হচ্ছে, হতাহত ও নিখোঁজদের মধ্যে ৪১ জন শিশুও রয়েছে। এ পর্যন্ত ৯টি শিশুর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। রুশ কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি হতাহত ও নিখোঁজদের এ সংখ্যা জানিয়েছে। সংবাদমাধ্যমটি আরও জানায়, অগ্নিকাণ্ডের শিকার ভবনটির কিছু অংশ ধসে পড়ার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। নিখোঁজদের খোঁজে ভবনটিতে অভিযান চালাচ্ছে উদ্ধারকারীরা।

মস্কো থেকে প্রায় ৩,৬০০ কিলোমিটার পূর্বে কয়লা উৎপাদনকারী এলাকা কেমেরোভো অবস্থিত। রবিবার (২৫ মার্চ) সন্ধ্যার দিকে ওই এলাকার উইন্টার চেরি কমপ্লেক্স নামের শপিং সেন্টারটিতে আগুন লাগে। ধারণা করা হচ্ছে,একেবারে উপরের তলায় আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। ওই শপিং সেন্টারের উপরের তলায় মূলত সিনেমা হলসহ বিনোদন কেন্দ্র রয়েছে। পরে ৫ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয় দমকল বাহিনী। এখন সেখানে উদ্ধার অভিযান চলছে। জরুরি সেবা বিভাগের ৬৬০ জন সদস্যকে উদ্ধার তৎপরতায় নিযুক্ত করা হয়েছে। আগুন নেভানোর পরও ভবন উত্তপ্ত থাকায় সবগুলো তলায় যেতে বেগ পেতে হয় উদ্ধারকারীদের। শেষ পর্যন্ত সিনেমা হলটিতে পৌঁছাতে সক্ষম হন তারা। অসমর্থিত সূত্রকে উদ্ধৃত করে রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স জানায়, সেখান থেকে নতুন করে কাউকে উদ্ধার করা যায়নি। ধ্বংসস্তূপের নিচে নিখোঁজরা চাপা পড়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে ৩৭ জন নিহত এবং ৬৪ জন নিখোঁজ থাকার কথা জানিয়েছিল রুশ কর্তৃপক্ষ। পরে তা সংশোধন করে জানানো হয়, যেসব মৃতদেহ শনাক্ত করা যায়নি তাদেরকেও নিখোঁজ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল। কেমেরোভোর আঞ্চলিক জরুরি ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপ-প্রধানকে উদ্ধৃত করে বিবিসি জানায়, শপিং মলটি ১৫শ বর্গফুট জায়গাজুড়ে আগুন ছড়িয়ে পড়েছিল।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়,শপিং কমপ্লেক্সে শিশুদের একটি বিনোদনকেন্দ্রে আগুনের সূত্রপাত হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ভিডিওতে আগুন লাগার পরপরই ওই শপিং মলের বিভিন্ন জানালা দিয়ে ধোঁয়া বের হতে দেখা গেছে। এসব ভিডিওতে অনেককেই ভবনটির জানালা দিয়ে লাফিয়ে বাইরে বেরিয়ে বাঁচার চেষ্টা করতে দেখা গেছে

বিবিসি জানায়, আগুন লাগার ঘটনায় হতাহতদের অনেকেই শপিং মলের সিনেমা হলের ভেতরে ছিলেন। আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে এরইমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। ডেইলি মেইল জানিয়েছে,শপিং কমপ্লেক্সটিতে একটি চিড়িয়াখানা রয়েছে। আগুনের কারণে ওই চিড়িয়াখানার ২০ প্রাণীর প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট