রোনালদোর গোলের পরও হারল জুভেন্টাস

রোনালদোর গোলের পরও হারল জুভেন্টাস

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর গোলে শুরুতে পিছিয়ে পড়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাটকীয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইংলিশ ক্লাবটি।

বুধবার রাতে জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে ‘এইচ’ গ্রুপের ম্যাচটি ২-১ গোলে জেতে অতিথিরা। গত মাসে ইউনাইটেডের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছিল জুভেন্টাস।

ঘরের মাঠে বুধবার ম্যাচের শুরু থেকে বেশিরভাগ সময় নিজেদের পায়ের বল রেখেছিল জুভেন্টাস। ভাগ্য ভাল হয়ে হয়তো ৩৫তম মিনিটেই স্বাগতিকরা গোলের দেখা পেয়ে যেত। কিন্তু

ডান দিক থেকে রোনালদোর পাস ডি-বক্সে মাঝ বরাবর পেয়ে সামি খেদিরার নেওয়া শট পোস্টে লাগে। দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে পাওলো দিবালার বাঁকানো শট ক্রসবারে লাগলে ফের হতাশ হতে হয় তুরিনের ক্লাবটির সমর্থকরা। শেষ পর্যন্ত তাদের আনন্দে ভাসান রোনালদো ম্যাচের ৬৫তম মিনিটে। লিওনার্দো বোনুচ্চির উঁচু করে বাড়ানো বল দুর্দান্ত ভলিতে জালে পাঠান রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক এ তারকা ফরোয়ার্ড। সব মিলিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে এটি সিআর সেভেনের ১২১তম গোল।

এদিকে ম্যাচের ৭৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করতে পারতো জুভেন্টাস। কিন্তু এবার রোনালদোর বাড়ান বল ফাঁকায় পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি হুয়ান কুয়াদরাদো। এর ৫ মিনিট পরই ভাগ্য বদলে ম্যানইউ কোচ আন্দের এররেরাকে তুলে নিয়ে হুয়ান মাতাকে নামান। কোচকে হতাশ করেননি তিনি। মাঠে নামার সাত মিনিট পর অসাধারণ এক ফ্রি-কিকে দলকে সমতায় ফেরান স্প্যানিশ এই মিডফিল্ডার। কিন্তু তখনও কেউ ভাবতে পারেনি এমন ম্যাচে জুভেন্টাস হারতে যাচ্ছে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য সেটাই হয়েছে অনেকটা দুর্ভাগ্যক্রমে। কেননা বাঁ দিক থেকে মাতার ফ্রি-কিক ঝাঁপিয়ে গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি ঠেকানোর পর ফিরতি বল গোলমুখে বোনুচ্চির মাথায় লাগার পর আলেক্স সান্দ্রোর গায়ে লেগে ভিতরে ঢুকে যায়।

এ হারের পরও ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রয়েছে জুভেন্টাস। ৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় ভালেন্সিয়া।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট