রোনালদোর বিরুদ্ধে আরো তিন তরুণীর ধর্ষণের অভিযোগ!

রোনালদোর বিরুদ্ধে আরো তিন তরুণীর ধর্ষণের অভিযোগ!

আরো বেকায়দায় পড়লেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ ফুটবলারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের নতুন অভিযোগ তুললেন আইনজীবী লেসলি স্টোভাল। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক মডেল ক্যাথরিন মায়োরগারকে ধর্ষণের খবরে এমনিতেই খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন পর্তুগিজ সুপারস্টার।

এবার রীতিমতো বোমা ফাটালেন মায়োরগার আইনজীবী লেসলি স্টোভাল। তিনি বলেন, ‘আমাকে এক নারী ফোন করে বলেছে রোনালদোর ধর্ষণের শিকার হয়ে তিনিও একই অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছিলেন।’ বৃটিশ ট্যাবলয়েড ‘ডেইলি মেইল’ এই খবর প্রকাশ করে।

তবে ওই নারীর নাম প্রকাশ করেননি স্টোভাল। সূত্রমতে, লাস ভেগাস পুলিশের কাছে বিস্তারিত তথ্য জানাবেন তিনি। রোনালদোর বিরুদ্ধে করা মায়োরগার ধর্ষণের অভিযোগে গোটা বিশ্বে তোলপাড় পড়ে যায়। ৩৪ বছর বয়সী মায়োরগার অভিযোগ, ২০০৯ সালে লাস ভেগাসে হোটেল রুমে তাকে যৌন হেনস্তা করেন রোনালদো। মায়োরগার অভিযোগটি পুনরায় তদন্ত করছে লাস ভেগাস পুলিশ।

সবকিছু অস্বীকার করে আসছেন ৩৩ বছর বয়সী রোনালদো। কিন্তু ৯ বছর আগে নাইটক্লাবে দুইজনের অন্তরঙ্গ নাচের ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে। মায়োরগার অভিযোগ, এর ঘণ্টাখানেক পরেই তাকে ধর্ষণ করেন রোনালদো। প্রথম এই ধর্ষণের খবর প্রকাশ করে জার্মান ম্যাগাজিন ‘ডার স্পিগেল’। ম্যাগাজিনটির বিরুদ্ধে মামলা করার হুমকিও দিয়ে রেখেছে রোনালদোর আইনজীবী।

রোনালদোর পাশে পর্তুগালের প্রধানমন্ত্রী

দুঃসময়ে নিজ দেশের প্রধানমন্ত্রী আন্তোনিও কস্তাকে পাশে পেলেন রোনালদো। দেশের ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ ক্রীড়াবিদের সমর্থনে কস্তা বলেন, ‘কাউকে দোষী সাব্যস্ত করার জন্য এতটুকু প্রমাণ যথেষ্ট নয়। যদি কোনো কিছু থেকেও থাকে তবে আমাদেরও প্রমাণ আছে। সে অসাধারণ একজন ক্রীড়াবিদ, অসাধারণ ফুটবলার, পর্তুগালের সম্মান বয়ে আনা একজন। আমাদের বিশ্বাস, কোনো কিছুই রোনালদোর অর্জনে কালিমা ছুড়ে দিতে পারবে না।’

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট