‘রোনালদোর মতো পুরুষ ধর্ষণ করতেই পারেন না’

‘রোনালদোর মতো পুরুষ ধর্ষণ করতেই পারেন না’

 

বেশ কিছুদিন আগে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছে লাস ভেগাস পুলিশ। কিন্তু ব্যাপারটি বিশ্বাস করতেই পারছেন না সিআর সেভেনের এক সময়ের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী সুপার মডেল নেরেইদা গ্যালার্দো। তার মতে, রোনালদো একজন আদর্শ পুরুষ। কখনই ধর্ষণের মতো জঘন্য কাজ করতে পারেননা তিনি।

২০০৮ সালে নেরেইদা গ্যালার্দোর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন রোনালদো। যদিও সেই সম্পর্ক টিকেছিল মাত্র আট মাসে। তারপরও ঐ সময়ের মধ্যে বর্তমান জুভেন্টাসে খেলা তারকাকে বেশ ভালো মানুষ হিসেবেই চিনেছিলেন নেরেইদা। তাই, রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণ-বিতর্কটা ঠিক বিশ্বাস করতে পারছেন না তিনি, ‘আমি অনেক মানুষের সঙ্গেই সম্পর্কে জড়িয়েছি, অনেকেই আমার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছে, জোর জবরদস্তি করার চেষ্টা করেছে, কিন্তু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো অবশ্যই তাদের মধ্যে কেউ নয়। রোনালদো অনেক সাহসী ছিল, অনেক ভালোবাসত আমাকে। সে কখনই আমার সঙ্গে জোরাজুরি করার চেষ্টা করেনি, তেমন কুমতলব নিয়ে কাছেই আসেনি কখনো। তাই রোনালদোর বিরুদ্ধে যখন ধর্ষণের অভিযোগ আসল, আমি বড় ধাক্কাই খেয়েছি। কিছুতেই বিশ্বাস করতে মন চায়নি। আমি ভাবতেই পারি না রোনালদোর মতো একজন কীভাবে মেয়েদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে!’

রোনালদোর পক্ষে সাক্ষী দিতে চান নেরেইদা। যদিও এ ব্যাপারে এখনও তার কাছে কেউ কোন প্রস্তাব নিয়ে আসেনি, ‘এখনো পর্যন্ত কেউ আমাকে সেই প্রস্তাব (রোনালদোর পক্ষে সাক্ষ্য দেওয়ার) দেয়নি, তবে কেউ যদি আমাকে সাক্ষ্য দিতে বলে, আমি অবশ্যই তার হয়ে আদালতে সাক্ষী দেব।’

এরআগে ২০০৯ সালে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার মুহূর্তে নেভাদার লাস ভেগাসের এক নৈশক্লাবে ক্যাথরিন মায়োরগাকে ধর্ষণ করেছিলেন রোনালদো। শুধু তাই নয় সেটি গোপন রাখতে ঐ নারীর সঙ্গে ৩ লাখ ৭৫ হাজার ডলারে সমঝোতা করেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। তারপরও ঘটনার পরপরই পুলিশকে ব্যাপারটি জানিয়েছিলেন ক্যাথরিন মায়োরগা।  কিন্তু তার আইনজীবী ও রোনালদোর আইনি দলকে নাকি জানানো হয়েছিল, তারা সমঝোতা করলে পুলিশ আপত্তি করবে না। যে কারণে ব্যাপারটি ধামাচাপা পড়ে যায়।

৯ বছর পর সবকিছু পেছনে ফেলে আবারও ঐ মামলা পুনরুজ্জীবীত করতে পুলিশকে জানান মায়োরগা। মূলত ‘হ্যাশট্যাগ মিটু’ আন্দোলনের পর থেকে ক্যাথরিন নিজের পরিচয় প্রকাশের সাহস পেয়েছেন বলে দাবি করা হচ্ছে।

রোনালদো অবশ্য শুরু থেকেই নিজেকে নির্দোষ বলে আসছেন। তারপরও ব্যাপারটি তিনি আইনের মাধ্যমেই মোকাবেলা করতে চান। এরইমধ্যে তার আইনজীবীরা আইনি লড়াইয়ের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন বলে জানিয়েছে স্প্যানিশ মিডিয়া।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট