লেবুর শরবতে শুরু হোক সকাল

লেবুর শরবতে শুরু হোক সকাল

লেবুকে বলা হয় ‘সুপার ফুড’। ভিটামিন সি, এ, বি১, বি৬, ম্যাগনেসিয়াম, বায়োফ্লাভোনয়েড, প্যাকটিন, ফলিক এসিড, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম ও পটাসিয়াম— কী নেই লেবুতে! পাকস্থলী, হৃদপিণ্ডের বিভিন্ন রোগসহ ইনফ্লুয়েঞ্জা, ল্যারিঙ্গিটিস, ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগ ও হাইপারটেশনে ভাল উপকার দেয় লেবু। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, লেবুর রস ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

বিভিন্ন ধরনের খাবারে লেবুর ব্যবহার হয়। তবে ভাল উপকার পাওয়া যায় লেবুর শরবতে। এ শরবত বাংলাদেশে খুবই জনপ্রিয়। এর জন্য বেশি আয়োজনের দরকার হয় না। হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে নিলেই হয়। লেবুর শরবত প্রতিদিন সকালে পান করলে অশেষ উপকার পাবেন। আসুন জেনে নেওয়া যাক সকাল বেলার এ পানীয়ের কিছু উপকারিতা-

– লেবু ‘ভিটামিন সি’ এর ভাল উৎস। এ ছাড়া নানাবিধ পুষ্টি উপাদানের ঘাটতি মোকাবেলা করে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে ভাল রাখে।

– এতে থাকা প্যাকটিন ফাইবার মলাশয়কে সুরক্ষিত রাখে। এ ছাড়া শক্তিশালী এন্টিব্যাকটেরিয়া হিসেবেও কাজ করে।

– শরীরের পিএইচ মাত্রা ভারসাম্যপূর্ণ রাখে।

– সকাল বেলায় গরম লেবুর রস শরীর থেকে টক্সিন দূর করে।

– হজমে সাহায্য করে ও পিত্তরসের উৎপাদন বাড়াতে সাহায্য করে।

– সিটরিক এসিড, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফরফরাস ও ম্যাঙ্গানিজের ভাল উৎস লেবুর রস।

– প্যাথজেনিক ব্যাকটিরিয়ার বৃদ্ধি ও কার্যকারিতা প্রতিরোধ করে। এ ব্যাকটিরিয়া ইনফেকশন ও নানাবিদ রোগের কারণ।

– শরীরের বিভিন্ন অংশের সন্ধিতে ব্যথা ও জ্বালাপোড়া কমাতে সাহায্য করে।

– ঠাণ্ডায় লেবুর রস খুবই উপকারী।

– লিভার এ্যানজাইমের মাধ্যমে লিভারকে শক্তিশালী করে।

– হৃদপিণ্ডের জ্বালাপোড়ায় ক্যালসিয়াম ও অক্সিজেনের ভারসাম্য রক্ষা করে। এ সময় এক গ্লাস লেবুর রস আপনাকে আরাম দিতে পারে।

– লেবুর রস ত্বক ভাল রাখে। বলিরেখা ও ব্রণ প্রতিরোধে বেশ কার্যকরী।

– দৃষ্টিশক্তির জন্য ভাল। চোখের সমস্যার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে।

– পরিপাক রস উৎপাদনে সাহায্য করে।

– দীর্ঘ পরিশ্রমের পর শরীরে লবণে ভারসাম্য আনতে সাহায্য করে।

সবগুলো গুণাগুণ পেতে সকাল শুরু করুন এক গ্লাস গরম লেবুর শরবত দিয়ে। এর নিরাময়ী গুণ স্বাস্থ্যে ভাল প্রভাব ফেলে। তবে মনে রাখতে হবে, দাঁতের সংস্পর্শে যেন সরাসরি লেবুর রস না আসে। যা এনামেল ধ্বংস করে দিতে পারে। তাই শরবত পানের পর ভাল করে কুলি করে নিন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট