শাকিব-অপুর ডিভোর্স হয়ে যাচ্ছে!

শাকিব-অপুর ডিভোর্স হয়ে যাচ্ছে!

চিত্রনায়ক শাকিব খান-চলচ্চিত্র অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় তারকা তারা দুজনই। এক সময় পর্দা কাপানো এই জুটি গোপনে প্রেমের সম্পর্কে প্রবেশ করেন। এরপর পর্দার অন্তরালে সম্পর্কের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সংসার পাতেন এই তারকাদ্বয়। সব শেষ সন্তানের সংবাদ প্রকাশ করে সব খবর ফাঁস করেন স্ত্রী অপু বিশ্বাস। এরপর সব কিছুই সবার জানা আছে। বিচ্ছেদ দিয়ে সব সম্পর্কের ইতি ঘটতে যাচ্ছে তাদের। আজ ২২ ফেব্রুয়ারি সব কিছুই শেষ হয়ে যাচ্ছে তাদের। সংসারের আনুষ্ঠানিক ইতি ঘটবে কাল।

অবশ্য তাদের এক করতে অনেক সহশিল্পী-শুভাকাঙ্ক্ষীরা এগিয়ে এসেছিলেন। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনও সমঝোতা বৈঠকের আয়োজন করেছিল। কিন্তু তাদের কোনভাবেই এক করা যায়নি। যদিও শাকিবের দেয়া তালাক এরইমধ্যে মেনে নিয়েছেন অপু।

গত বছরের এপ্রিলে বিয়ের খবর ফাঁস করেন অপু বিশ্বাস। সন্তানকেও সবার সামনে নিয়ে আসেন। জানান, শাকিব তাকে জোর করে ধর্মান্তরিত করেছে। শাকিবের কারণে তিনবার গর্ভপাত করাতেও বাধ্য হয়েছেন। সে ঘটনাটি শোবিজপাড়াকে বেশ আলোড়িত করে। এরপর থেকে বিয়ের কাজী থেকে শুরু করে দেনমোহরসহ নানা কিছুতেই শাকিব-অপুর মতবিরোধ জনসমক্ষে এসেছে।

এখন ডিভোর্স মেনে নিলেও শাকিব-অপু সংবাদের শিরোনামেই থাকছেন। সম্প্রতি অপু প্রকাশ্যেই শাকিবকে চরিত্রহীন বলে আখ্যা দেন। জানান, সন্তানকে কখনই তার বাবার মতো হতে দেবেন না।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তাঁরা দুজন সমানতালে সিনেমার শুটিং অব্যাহত রাখেন। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল বিকেলে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সেদিন অপু বলেন, ‘আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলে আছে।’

বিয়ের খবর জনসমক্ষে আসার পর দুজনের সম্পর্কের টানাপোড়েন তৈরি হয়। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় পৌঁছায় যে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস নিজেদের মধ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ করে দেন। শুধু ছেলে আব্রামের কারণে মাঝেমধ্যে দেখা হলেও কথা হয়নি দুজনের।

এরপর গত বছর ২২ নভেম্বর অপু বিশ্বাসের ঢাকার বাসা ও বগুড়ার ঠিকানায় রেজিস্ট্রি করা হলফনামা আকারে তালাকনামা পাঠানো হয়। যার প্রেক্ষিতে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে সব সম্পর্ক।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট