শ্যাম্পেইন উৎসব থেকে মঈন-রশিদের সরে দাঁড়ানোর ভিডিও ভাইরাল

শ্যাম্পেইন উৎসব থেকে মঈন-রশিদের সরে দাঁড়ানোর ভিডিও ভাইরাল

কেটের মাঠেও এ এক অনন্য নজির। সুপার অভারে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে টিম ইংল্যান্ড ক্রিকেটে বিশ্বজয় করেছে। জয়ের আনন্দে মাতোয়ারা টিমের সঙ্গে পুরো ইংল্যান্ড ও বিভিন্ন দেশের ভক্তরা। প্রথমত দেখা যায় জয়ের আনন্দে পুরো টিমের সঙ্গে আনন্দে আত্মহারা হয়ে উল্লাসে মেতে ওঠে ইংল্যান্ডের অন‍্যতম অলরাউন্ডার মঈন আলি ও আদিল রশিদও।

এর পরই দেখা যায় এক অন‍্য দৃশ্য, ট্রফি জেতার আনন্দে মাঠের মধ‍্যেই মদ নিয়ে উল্লাসে মেতে ওঠে পুরো টিম ইংল্যান্ড। সেই সময় সঙ্গে সঙ্গেই কিছুটা দূরে সরে যান ইংল্যান্ডের অন‍্যতম ক্রিকেটার মঈন আলি ও আদিল রশিদ। ইসলামের প্রতি মান‍্যতা ও মদের প্রতি ঘৃণার কারণেই দূরে সরে যান ইংল্যান্ডের ওই দুই দাপুটে মুসলিম ক্রিকেটার। কারণ শরীরের কোনো জায়গায় কোনোভাবেই যেন মদের ছিটেফোঁটাও না পড়ে।

কিছুক্ষণ পরে হৃদয়ে আনন্দের বন‍্যা নিয়ে তারা আবার টিমের সঙ্গে যোগদান করেন। কিন্তু তখনও দেখেন যে টিম ইংল্যান্ড মদ নিয়ে উল্লাসে মেতেই রয়েছে। সেই সময় দেখা যায় পুরো টিম মদ নিয়ে উল্লাসের সঙ্গে সঙ্গে মদ পান করতে শুরু করেছে। তখন আবারও সেখান থেকে সরে যান দুই মুসলিম ক্রিকেটার মইন আলি ও আদিল রশিদ।

উল্লেখ্য, লর্ডসে রবিবার টস জিতে শুরুতে ব্যাট করে নিউজিল্যান্ড নির্ধারিত ওভারে ৮ উইকেটে ২৪১ রান করে। জবাবে ৫০ ওভারে সবক’টি উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ডও করে সমান রান।

তাই নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচটি করে গড়ায় সুপার ওভারে। সুপার ওভারেও দুই দল সমান ১৫ রান করে সংগ্রহ করে। তাই সুপার ওভারের খেলাও টাই হয়। তবে বাউন্ডারি বেশি থাকায় ইংল্যান্ড জিতে নেয় শিরোপা। মূল ইনিংস ও সুপার ওভার মিলে ইংল্যান্ড ২৬ ও নিউজিল্যান্ড ১৭টি বাউন্ডারি হাঁকায়। সেই ২৬-১৭ ব্যবধানেই জয় নিশ্চিত হয় ইংল‍্যান্ডের। এর আগেও ১৯৭৯, ১৯৮৭ ও ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ ফাইনালে ইংল্যান্ড খেলেছে কিন্ত এবার প্রথম ট্রফি জিততে সক্ষম হয়।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ