“সংলাপের পথ উন্মুক্ত রাখতেই প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন”

“সংলাপের পথ উন্মুক্ত রাখতেই প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন”

কোনো চাপের কাছে নতি স্বীকার করে নয় বরং গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখতেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বৃহস্পতিবার সংলাপ হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, সংলাপের পথ উন্মুক্ত রাখতেই প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

আজ মঙ্গলাবর সকালে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগ পলিসি শিফট করে নি। আমরা আমাদের অবস্থানেই আছি। কারো চাপে কিংবা আন্দোলনে নতি স্বীকার করে সংলাপে বসছি বিষয়টি এমন ভাবা ঠিক হবে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিষয়টা হচ্ছে ড. কামাল হোসেন সাহেব ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন, দলের গুরুত্বপূর্ন নেতোদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে নেত্রী বলেছেন, আমার সঙ্গে কেউ দেখা করতে চাইলে, তার দরজা আমার জন্য বন্ধ না। সব সময় খোলা। তাঁদের আসতে বলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খোলামেলা পরিবেশেই আলোচনা হবে। আমরা ডিনারেরও ব্যবস্থা করেছি। আওয়ামী লীগের পক্ষে কারা সংলাপে থাকবেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, তাঁদের তালিকা দেখি পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সংলাপে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফা দাবি এবং ১১ লক্ষ্যও স্থান পাবে বলে ইঙ্গিত দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন সামনে রেখে গতকাল সোমবার সংলাপের প্রস্তাব দিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি পান ড. কামাল হোসেন। এর জবাবে আজ সকালেই প্রধানমন্ত্রী সংলাপে বসার আমন্ত্রণ জানিয়ে ড. কামালকে চিঠি পাঠিয়েছেন। আগামী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭ টায় গণভবনে এই সংলাপ হবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট