সানিয়া মির্জা ভারতীয়ই নন!

সানিয়া মির্জা ভারতীয়ই নন!

সানিয়া মির্জা ভারতীয়ই নন…উনি আদতে পাকিস্তানি। কার্যত এমন কড়া ভাষাতেই এবার সানিয়া মির্জার দিকে কটাক্ষের তির ছুঁড়লো কিছু লোক। সানিয়ার অপরাধ তিনি কাঠুরিয়ায় ধর্ষিতা ৮ বছরের একরত্তির হয়ে টুইট করেছিলেন। অপরাধীদের কড়া নিন্দা করেছিলেন। তারপরেই পরপর ব্যঙ্গ বিদ্রুপের শিকার হন তিনি।

তার উদ্দেশে লেখা হয় ‘‘পাকিস্তনিকে বিয়ে করেছেন, তাই আপনি দেশের কেউ নন’, ‘আপনাকে সম্পূর্ণ শ্রদ্ধা দিয়েই বলছি, কোন দেশের কথা আপনি বলছেন? আপনি এক পাকিস্তানিকে বিয়ে করেছিলেন। আপনি আর ভারতীয়ই নন। যদি সত্যিই টুইট করার হয়, তাহলে পাকিস্তানি জঙ্গিরা যখন হত্যা করে, তা নিয়ে লিখুন।’’

প্রসঙ্গত, কাশ্মীরে ঘটে যাওয়া ঘৃণ্য কাজের নিন্দা করে সানিয়া লিখেছিলেন, ‘‘গোটা বিশ্বে আমরা যে স্থানে নিজেদের দেখতে চাই, এটা কি সেই দেশ? যদি আমরা জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে এই ৮ বছরের শিশু কন্যার পাশে না দাঁড়াই, তাহলে পৃথিবীর কোনো বিষয়ের জন্যই পাশে দাঁড়াতে পারব না, এমনকী মানবতার পাশেও না। হৃদয়ে ব্যথা হচ্ছে।’’

এমন টুইটের পরেই ট্রোলিংয়ের শিকার হন টেনিস তারকা। তার বিরুদ্ধে নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন শুরু হতেই ফের একবার টুইট করেন সানিয়া। বলে দেন, ‘‘প্রথমত, যে কেউ অন্য স্থানে বিয়ে করতে পারে। আপনি একজন ব্যক্তিকেই বিয়ে করতে পারেন। দ্বিতীয়ত, ক্ষুদ্র হৃদয়ের ব্যক্তিদের আমার নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলার অধিকার নেই। আমি ভারতের হয়ে খেলি। একজন ভারতীয়, এবং আজীবন তাই থাকব। যদি কোনদিন আপনি ধর্ম, দেশের বাইরে বৃহত্তর পরিপ্রেক্ষিতে ভাবা শুরু করবেন, সেদিনই হয়তো প্রকৃত মানবতাবাদীদের পক্ষে দাঁড়াতে পারবেন।’’

শুধুমাত্র টেনিস কোর্টেই নয়, খেলার বাইরেও যে সত্যিই তিনি সম্রাজ্ঞী, তাই যেন প্রমাণ করে দিলেন ফের।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট