‘সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ করে উসকানি না দিলেও পারতেন’

‘সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ করে উসকানি না দিলেও পারতেন’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহা আরো দুই মাস পর বই প্রকাশ করতে পারতেন। নির্বাচন সামনে রেখে সরকারবিরোধী উসকানি তিনি না দিলেও পারতেন। আজ শুক্রবার গাজীপুরের ভোগড়া বাইপাস এলাকায় বিআরটি (বাস র‍্যাপিড ট্রানজিট) প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করতে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

নতুন ঐক্য গড়ার প্রক্রিয়াকে স্বাগত জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে এ ধরনের প্রক্রিয়ায় সরকারের কোনো মাথাব্যথা নেই। আমরা বিশ্বাস করি উন্নয়ন ও সুশাসনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের আস্থা অর্জন করেছে। আগামী নির্বাচনে আমরা সোনালী ফসল ঘরে তুলতে সক্ষম হব।’

কাদের আরো বলেন, ‘ তার (সিনহা) মনে কষ্ট থাকতে পারে, জ্বালা থাকতে পারে, তার লেখা বই প্রকাশ করবেন এটাই স্বাভাবিক, তবে বিদেশের মাটিতে কেন? নির্বাচন সামনে রেখে কেন? এ বই আরো দুই-তিন মাস পরও প্রকাশ করতে পারতেন। এটা এ সময় প্রকাশ করা, এটাকে নিয়ে সরকারবিরোধী উসকানি এ সময় তিনি না দিলেও পারতেন। বিদেশে গিয়ে মনগড়া তথ্য দিয়ে সরকারবিরোধী মহলের জন্য, তাদের অপপ্রচারের সুবিধা করার জন্য যদি এ সময় বইটি প্রকাশ করে থাকেন, তাহলে মনে হয় একজন সাবেক প্রধান বিচারপতি, তার দায়িত্বশীলতার বিষয়টি প্রশ্নচিহ্ন হয়ে ঝুলে থাকে।’

আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘যার খুশি তিনি সব বই লিখবেন, সে ব্যাপারে আমাদের তো কোনো মন্তব্য করার কিছু নেই। তবে আমি অলরেডি বিষয়টা নিয়ে একটা জেনারেল কমেন্ট করেছি, আপানারা দেখেছেন। আমার শুধু একটাই প্রশ্ন যে বইটি প্রকাশ করুন; তাঁর লেখা বই তিনি প্রকাশ করবেন, এটাই স্বাভাবিক। বিদেশের মাটিতে কেন? আর নির্বাচন সামনে রেখে এ সময়ে কেন? এই বইটি আরো দুই-তিন মাস পরেও প্রকাশ করা যেত। তো এখন এ সময়ে প্রকাশ করা এটাকে নিয়ে সরকারবিরোধী অপপ্রচারের যে একটা উসকানি, এ সময়ে তিনি না দিলেও পারতেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন স্বাধীন সাংবাদিকতা এবং মত প্রকাশে কোনো বাধার সৃষ্টি করবে না। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি করা হয়েছে শুধু ডিজিটাল ক্রাইম নিয়ন্ত্রণ করার জন্য। এতে কারো আতঙ্কের কোনো কারণ নেই। এ আইনের মাধ্যমে স্বাধীন সাংবাদিকতা ও গণতন্ত্র এ দুটি অনুষঙ্গ যাতে বাধাগ্রস্ত না হয়, সে ব্যাপারে সরকার, প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠে কণ্ঠে মিলিয়ে আমরা সকলকে আশ্বস্ত করছি যে এখানে স্বাধীন সাংবাদিকতা, ইনডিপেনডেন্ট জার্নালিজম, ফ্রিডম অব এক্সপ্রেশনে কোনোভাবেই গণতন্ত্রের এ দুটি অনুষঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।’

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, সড়ক ও জনপথ বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সবুজ উদ্দীন খান ও বিআরটি প্রকল্পের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার সদ্য প্রকাশিত আত্মজীবনীমূলক বই ‘এ ব্রোকেন ড্রিম : রুল অব ল, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’ অনলাইন বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনে প্রকাশিত হয়েছে। বইটির অনেক জায়গায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর সমালোচনা করা হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট