সুখী দাম্পত্যের জন্য প্রয়োজন আলাদা বাথরুম: মিশেল ওবামা

সুখী দাম্পত্যের জন্য প্রয়োজন আলাদা বাথরুম: মিশেল ওবামা

যদি সফল দম্পতিদের একটি তালিকা বানানো হয় তাতে সহজেই জায়গা করে নেবেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এবং সাবেক ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামা। তালিকার শীর্ষেও থাকতে পারেন এই দম্পতি। সম্প্রতি নিজেদের সফল দাম্পত্য জীবনের কয়েকটি ‘সিক্রেটস’ জানিয়েছেন মিশেল। সেখানে তিনি বলেন যে, দাম্পত্য জীবনকে সফল করতে হলে স্বামী ও স্ত্রীর থাকতে হবে আলাদা আলাদা বাথরুম বা টয়লেট।

ওবামা ফাউন্ডেশনের নতুন এক উদ্যোগ গ্লোবাল গার্লস অ্যালায়েন্স এর উদ্বোধনী দিনে ‘ট্যুডে’ শো’তে মিশেল ওবামার কাছে অনেকেই দাম্পত্য জীবনের সফলতার উপায় সম্পর্কে জানতে চান। তিনি তখন বলেন, “বৈবাহিক জীবনের সফলতার অন্যতম চাবিকাঠি হলো দুই জনের জন্য আলাদা আলাদা বাথরুম থাকা। যখন সে মাঝে মাঝে আমার বাথরুমে আসবে তখন আমার মনে হবে, ‘তুমি এখানে কেন?’ আর তিনি হয়তো বলবেন, ‘আমিও এখানে থাকি। আমিও কী আমার বাথরুম ব্যবহার করতে পারি?”

মজার বিষয় হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পও এই নীতি অনুসরণ করেন। ২০১৫ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণার সময় পিপল ম্যাগাজিনকে তিনি বলেছিলেন, “দারুণ বৈবাহিক সম্পর্কের মূলে রয়েছে দুই জনের জন্য আলাদা আলাদা বাথরুম”।

গবেষকেরাও তাদের এমন বক্তব্যকে সমর্থন করে বক্তব্য দিয়েছেন। গবেষকেরা বলছেন, আলাদা আলাদা বাথরুম থাকলে আপনার মনে হবে যে, আপনার নিজের একটি আলাদা জগত। ঐ জগতে আপনার সময়গুলো শুধুই একান্ত আপনার। চার হাজার ৭৮০ জন দম্পতির ওপর চালানো এক জরিপেও এর সত্যতা পাওয়া গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে পরিচালিত এই জরিপে দেখা গেছে, বেশিরভাগ দম্পতিই এমন বাড়ি পছন্দ করেন যেগুলোতে বেশি সংখ্যক বাথরুম আছে।

আর হ্যাঁ, মানব সভ্যতার অনেক আবিষ্কার কিন্তু বাথরুমেই হয়েছে। আর্কিমিডিসকে ভুলে যাবেন না যেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট