সুন্দরবনে বন্দুকযুদ্ধে বাহিনী প্রধান আলম নিহত

সুন্দরবনে বন্দুকযুদ্ধে বাহিনী প্রধান আলম নিহত

সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে বনদস্যুদের কথিত বন্দুকযুদ্ধে বনদস্যু আলম বাহিনীর প্রধান আলম (৩৫) নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকালে বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের চাদঁপাই রেঞ্জের মৃগমারী খাল এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এ সময় বনদস্যুদের ব্যব‎‎হৃত দেশি-বিদেশি ১২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫ শতাধিক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল ফরিদুল আলম বলেন, সুন্দরবনে জেলে অপহরণের খবর পেয়ে র‌্যাব নিয়মিত টহলের পাশাপাশি সকালে একটি বিশেষ দল অপহৃত জেলেদের উদ্ধারে অভিযানে নামে।

বৃহষ্পতিবার সকাল ৮টার দিকে র‌্যাব সদস্যরা চাদঁপাই রেঞ্জের মৃগমারী খাল এলাকায় পৌঁছলে বনদস্যু আলম বাহিনীর সদস্যরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালাতে শুরু করে। এ সময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে।

উভয়পক্ষের মধ্যে প্রায় ৩০ মিনিট ধরে গুলিবিনিময়ের এক পর্যায়ে বনদস্যুরা বনের গহীণে পালিয়ে যায়। পরে সেখানে তল্লাশি চালিয়ে একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ, ১২টি দেশি বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫ শতাধিক বিভিন্ন ধরনের গুলি উদ্ধার করা হয়। এছাড়া দস্যুদের ব্যবহৃত বিপুল পরিমান রসদ উদ্ধার করা হয়।

বন্দুকযুদ্ধের পরে সেখানে আসা মৌয়াল ও জেলেরা নিহতকে আলম বাহিনীর প্রধান আলম বলে সনাক্ত করে। এই বাহিনীর বিরুদ্ধে সুন্দরবন ও বঙ্গোপসাগরের উপর নির্ভরশীল মানুষদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করার অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে বলে র‌্যাব দাবি করেছে। বনদস্যু বাহিনীর প্রধান আলমের বিরুদ্ধের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক