সুযোগ পেলে নেইমারকে ছুঁয়ে দেখার ইচ্ছা পড়শির!

সুযোগ পেলে নেইমারকে ছুঁয়ে দেখার ইচ্ছা পড়শির!

শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল। বাংলাদেশে বিশ্বকাপ মানে আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিল উত্তেজনা। তার থেকে দূরে নেই নাঁচিয়ে এবং ছবি আকিয়ে দুই ভাই বোনের মধ্যে ছোট পড়শি। ফুটবলে ব্রাজিলের ভক্ত পড়শি বেশি ভক্ত নেইমারের। বলা চলে অন্ধভক্ত।

একেবারে ফ্যান গোছে ভক্ত। সুযোগ হলে নেইমারকে ছুঁয়ে দেখার ইচ্ছা আছে তার। বড় ভাই স্বাক্ষর এহসান তার সব ভালোবাসার জায়গা। সেই ভাইও ব্রাজিলের সমর্থক। অতএব এটুকু নিশ্চিত যে ভাই বোনে আর যাই হোক সমর্থন নিয়ে দ্বন্দ্ব হবেনা। সবশেষে থাকল বাবা মা। তারাও ব্রাজিলের সমর্থক। আর কি চাই। তবে এবার পড়শির আর্জেন্টিনা সমর্থক ভক্তরা বিগড়ে না গেলেই হয়।

২০০৯ সালের চ্যানেল আইয়ের ক্ষুদে গানরাজ ২য় রানার আপ এখন পরিণত। পূর্ণ। দ্বিতীয়বারের মত হলেন পণ্যদূত। তানিম রহমান অংশুর নির্মাণে সে পণ্যের একটি বিজ্ঞাপনে অংশ নিয়েছেন। যেখানে তার সহশিল্পী মিনার ও প্রীতম হাসান। কিন্তু যেটা তার জীবন সেই গান ছাড়া কি তাকে ভাবা যায়। গানের ‘রাস্তা’য় সতত চলাচল করা পড়শি এবার ঈদে ছড়াচ্ছেন ‘জাদু’।

কেবল লিরিকাল ভিডিওতে অবমুক্ত হয়েছে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার ছাত্রী সাবরিনা পড়শির নতুন গান ‘জাদু’। অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভির ইউটিউবে। গানটি লিখেছেন সুদীপ কুমার দীপ এবং সুর করেছেন ‘রাস্তা’র জুয়েল মোর্শেদ।

এদিকে দ্বৈত সংগীতের একটি প্রকল্প নিয়ে এগুচ্ছেন ‘কমল কুঁড়ি’ পড়শি। সহশিল্পী ইমরান এবং গীতিকার রবিউল ইসলাম জীবন। এর আগেও পড়শি, ইমরান এবং জীবন জুটির গান হয়েছে। তবে তিনটি গানের প্রকল্প এই প্রথম। ঈদের পর গানগুলোর মিউজিক ভিডিও হবে। তারপর প্রকাশ পাবে তিন গান। সিডি চয়েস থেকে এই ডুয়েট বের হবে  জানিয়ে পড়শি বলেন, পছন্দ না হলেও মিউজিক ভিডিও এখন আমাদের সংগীতের একটি অনিবার্য অংশ। শুধু আমাদের কেন বিশ্ব সংগীতেও তাই।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট