‘সুয়া উড়িলো, উড়িলো জীবেরও জীবন’ : লেখক সাক্ষাৎকার

‘সুয়া উড়িলো, উড়িলো জীবেরও জীবন’ : লেখক সাক্ষাৎকার

 একুশে বইমেলা লেখক আড্ডার দ্বিতীয় পর্বে আমাদের অতিথি রাফিউজ্জামান সিফাত। পেশায় প্রকৌশলী ও নেশায় লেখক সিফাতের দ্বিতীয় বই প্রকাশ পেয়েছে এবারের বইমেলায়। বইয়ের নাম ‘সুয়া উড়িলো, উড়িলো জীবেরও জীবন’। আলোচনার চুম্বকাংশ নিচে তুলে ধরা হলো।

ডাকপিয়ন২৪: ‘সুয়া উড়িলো, উড়িলো জীবেরও জীবন’… বইয়ের নামটা কোথা থেকে এলো?

রাফিউজ্জামান সিফাত: আমার লিখতে যতোটা না সময় লাগে তারচেয়ে বেশী সময় লাগে চরিত্রের আর গল্পের নাম কি হবে তা ভাবতে।  আমি চাচ্ছিলাম এমন একটা কিছু যা পড়েই  আমার উপন্যাসের স্বাদটা পাওয়া যাবে। অনেকটা কমলালেবুর মতো। কমলালেবুর নাম  শুনলেই যেমন ঘ্রাণ পাওয়া যায়, তেমন কিছু।নামটা শুনে যেন উপন্যাসটা ফিল করতে পারি। আমি বাউল গানের বড্ড ভক্ত।  সিলেটের ফকির শীতালং শাহ’র  সুয়া উড়িলো উড়িলো গানটা শুনে  মনে হয়েছে –আমি পাইলাম,আমি ইহাকে পাইলাম’।

ডাকপিয়ন২৪: বইয়ের কন্টেন্ট কি নিয়ে?

রাফিউজ্জামান সিফাত:  ভালোবাসার। মফঃস্বল শহরের ভালোবাসার গল্প। যখন সেলফোন আর ফেসবুকের প্রাদুর্ভাব ছিলনা সময়টা তখনকার।  প্রথমবারের মতো প্রেমে পড়া এক কিশোরীর চরিত্র যেমন আছে তেমনি আছে নিজের হাতে ভাগ্য গড়তে চাওয়া তরুণী। পরস্পর বিপরীতমুখী দু-যুবকের চোখে পলিটিক্সের উত্থান পতন আর এক বালক ফুটবলারের বিস্ময়কর বেড়ে উঠার গল্প। অতীতের সাথে বর্তমানের মেলবন্ধন ঘটানো আরও ইন্টারেস্টিং কিছুচরিত্র নিয়ে গল্পের ভিতর গল্প বলে‘সুয়াউড়িলো, উড়িলোজীবেরওজীবন’  এর এগিয়ে চলা।

ডাকপিয়ন২৪: কোন প্রকাশনী থেকে বের হচ্ছে?

রাফিউজ্জামান সিফাত: আদী প্রকাশন, স্টল নম্বর- ৩২২

ডাকপিয়ন২৪: এটা কয় নম্বর বই?

রাফিউজ্জামান সিফাত:  এটা আমার প্রথম উপন্যাস আর একুশে বইমেলায় প্রকাশিত দ্বিতীয় বই। প্রথম বই একুশে বইমেলা ২০১৬ তে প্রকাশিত ছোটগল্প সমগ্র ‘সে আমার গোপন’। দুইটা বই-ই  আদী প্রকাশন  থেকে প্রকাশিত।

ডাকপিয়ন২৪: প্রিয় লেখক কে? কার লেখা পড়ে লেখক হওয়ার অনুপ্রেরণা পান?

রাফিউজ্জামান সিফাত: আগে প্রিয় লেখক ছিল স্কুলের বেলী ম্যাডাম। তিনি মাঝে মধ্যে আমার খাতায় নানান উৎসাহমূলক কথা লিখতেন। যেমনঃ দুষ্টামি কম কর, নাইলে তোকে দিয়ে কিচ্ছু হবে না;  হাতের লেখা পরিষ্কার না,  রুলটানা কাগজে একশবার নিজের নাম লিখে নিয়ে আসবি। এইসব এখন প্রিয় লেখক, অফিসে ছুটির নোটিশ মেইল যিনি দেন তিনি। আসলে আমি সবার লেখাই পড়ি।  যে কোন ভালো লেখাই আমাকে প্রথমে  হতাশাগ্রস্ত করে-  কেন আমি এই লেখাটা আগে লিখতে পারলাম না, পরে অনুপ্রাণিত করে। নাহ, তিনি পারলে আমিও পারবো।

16683059_1414754781888134_1150846828_n (1)

বইমেলায় ভক্তদের অটোগ্রাফ দিচ্ছেন সিফাত

ডাকপিয়ন২৪: নিজেকে ২ লাইনে বর্ননা করুন?

রাফিউজ্জামান সিফাত: ১) সুয়া উড়িলো উড়িলো জীবেরও জীবন, ২) সে আমার গোপন

ডাকপিয়ন২৪: লেখালেখির শুরুটা কিভাবে?

রাফিউজ্জামান সিফাত: স্লেটে অ আ লিখে। আমার মা শিখাতো। হা হাহা. . শুরুটা একেবারে শুরুতেই। আমার স্পষ্ট মনে আছে, সবুজ একটা ডায়েরীতে ক্লাশ ওয়ানে থাকতে আমি ছড়া লিখতাম। আসলে ওইটা ছড়া কবিতা কিছুই হতো না। তবে ঐ সময়ে আমার ধারনা ছিল, আমি বেশ ভালো লিখি।  খুব যত্ন  করে সংরক্ষণ করতাম  ছোট্ট সবুজ ডায়েরিটা। স্কুলে থাকা কালীন সময়ে স্কুল ম্যাগাজিনে , প্রথম আলোর গোল্লাছুটে,  কলেজে আসার পর স্থানীয় সাহিত্যিক পত্রিকায়, তারপর যায় যায় দিন ( মৌচাকে ঢিল- এ )  লিখে যাওয়া। বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে অনলাইন  জগতের সাথে পরিচয়। পরিচয় ব্লগিং এর সাথে। ধুমিয়ে ২০০৯ থেকে ব্লগিং শুরু। একসময় সাপ্তাহিক ২০০০ এ তারপর বাংলাদেশ প্রতিদিনে লেখালিখি। এভাবেই চলছে। প্রতিনিয়ত কোথাও না কোথাও নতুন কোন না কোন মাধ্যমে লেখালিখি শুরু হচ্ছে।

ডাকপিয়ন২৪: ব্যক্তি জীবনে রাফিউজ্জামান সিফাত কি পেশায় নিয়োজিত?

রাফিউজ্জামান সিফাত:  কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং।

ডাকপিয়ন২৪: নতুন লেখকদের জন্য বর্তমান বাজারে চ্যালেঞ্জ কতখানি?

রাফিউজ্জামান সিফাত: কিছুটা চ্যালেঞ্জ আছে।  গতকাল বইমেলায় শুনলাম কে যেন মাইকে বলছে- বইমেলায় প্রথম দশদিনে এক হাজার পাঁচশ কতো যেন  নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে!! ভাবা যায়! এতো এতো বই। এতো এতো রাইটার।  কারটা কিনবো? ক্যামনে বুঝব উনি ভালো লিখেন?   বই বের হচ্ছে কিন্তু কয়জন ভালো প্রকাশক পায়?  এমন বেশ কিছু ব্যাপার সাপার আছে। লেখালিখির মাধ্যমটা আনন্দের কিন্তু টিকে থাকাটা চ্যালেঞ্জের।  তবে হতাশ হবার কিছু নেই। ও পারলে, তুমিও পারবে। আরও ভালো করে পারবে।

16709449_1414757045221241_1846687261_o (1)

বইমেলায় এক ভক্তের সঙ্গে ফটোগ্রাফে সিফাত

ডাকপিয়ন২৪: পাঠকদের উদ্দেশ্যে কিছু বলুন?

রাফিউজ্জামান সিফাত: পাঠকরা বুদ্ধিমান। তারা জানে ভালো বইয়ের কদর। লক্ষ্য করলে দেখবেন, ভালো লেখা কিন্তু হারিয়ে যায় না। হয়তো সময় লাগে,  স্ট্রাগল করতে হয় কিন্তু পাঠকরা তাকে হারাতে দেন না, চোখে পড়লে তার যত্ন করে।

সুয়া উড়িলো উড়িলো জীবেরও জীবন, বইমেলায় বইটি পাওয়া যাচ্ছে আদী প্রকাশন, স্টল নং-  ৩২২-এ। ২৫% ছাড়ে ঘরে বসে বইটি হাতে পেতে রকমারি লিংকঃ  https://goo.gl/VMo1iJ কিংবা ফোনে-16297 বা 01519521971 বা 01841115115 নম্বরে কল করে অর্ডার করতে পারেন। লেখকের ফেসবুক লিংকঃ www.facebook.com/rafiuzzamansifat

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ