সোশ্যাল মিডিয়ার সব সেলিব্রেটিকে ছাড়িয়ে রোনালদো

সোশ্যাল মিডিয়ার সব সেলিব্রেটিকে ছাড়িয়ে রোনালদো

নিযুত ফুটবল ভক্তের হৃদস্পন্দন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। প্রায় এক দশক ধরে ফর্মের তুঙ্গে রয়েছে পর্তুগিজ এ তারকা। গত বিশ্বকাপে দল বাজে খেললেও রোনালদো তাঁর নিজের খেলাটাই খেলেছেন। বিশ্বকাপের পর রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ছেড়ে বড় অংকের অর্থ নিয়ে যোগ দিয়েছেন জুভেন্টাসে। এর কিছু দিন পরই তাঁর বিরুদ্ধে উঠে ধর্ষণের অভিযোগ। মার্কিন এক তরুণী অভিযোগ করেন রোনালদো হোটেল কক্ষে তাকে জোর করে ধর্ষণ করেন।

এতোকিছুর পরও জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়ে নি রোনালদোর। যেমনটি দেখা যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তাঁর শুভানুধ্যায়ীদের দেখে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আর্জেন্টিনা ফুটবলের কিংবদন্তী লিওনেল মেসি কেন, বহু আন্তর্জাতিক সেলিব্রেটিকেও পেছনে ফেলে শীর্ষে আছেন রোনালদো। এমনকি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পোপ ফ্রান্সিস, ডোনাল্ড ট্রাম্প, বারাক ওবামাদের চেয়েও অনেক বেশি জনপ্রিয় তিনি।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ফুটবল তারকাদের ক্ষেত্রে রোনালদোর জনপ্রিয়তা কতটা তা ফলোয়ারদের সংখ্যা দেখলেই বুঝা যায় (মিলিয়নের হিসাবে):

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (৩৪০): ফেসবুক-১২৩, ইনস্টাগ্রাম-৩৪৩, টুইটার-৭৫

নেইমার জুনিয়র (২০৫): ফেসবুক-৬১, ইনস্টাগ্রাম-১০৩, টুইটার-৪১

লিওনেল মেসি (১৮৯): ফেসবুক -৯০, ইনস্টাগ্রাম-৯৯, টুইটার-নেই

হামেস রদ্রিগেজ (৯১): ফেসবুক-৩৩, ইনস্টাগ্রাম-৪০, টুইটার-১৮

গ্যারেথ বেল (৮৩): ফেসবুক-২৯, ইনস্টাগ্রাম-৩৭, টুইটার-১৭

অন্যসব খেলার তারকা যেমন, লেব্রোন জেমস, স্টিফেন কারি কিংবা কনর ম্যাকগ্রেগরের মতো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তুমুল জনপ্রিয় খেলা এনবিএ’র মহাতারকাদের অনেক বড় ব্যবধানে পেছনে ফেলে দিয়েছেন পর্তুগিজ ফুটবলের যুবরাজ রোনালদো।

রোনালদোর ৩৪০ মিলিয়ন ফলোয়ারের বিপরীতে এনবিএ তারকা লেব্রোন জেমসের ফলোয়ার সংখ্যা ১০৬ মিলিয়ন। আরেক এনবিএ তারকা স্টিফেন কারির ফলোয়ার সংখ্যা ৪৩ মিলিয়ন।

রোনালদো তারকা খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রে এক নতুন মাইলফলক গড়েছেন। তার জনপ্রিয়তার কাছে পিছিয়ে পড়েছেন অনেক বড় সেলিব্রেটিরাও। রোনালদোর চেয়ে ঢের পেছনে কানাডিয়ান পপ তারকা জাস্টিন বিবার (২৮৪ মিলিয়ন)।

আরেক মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী টেলর সুইফটের ফলোয়ার সংখ্যা ২৬৮ মিলিয়ন। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ফলোয়ার সংখ্যা ১৭৬ মিলিয়ন, বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ৯০ মিলিয়ন আর পোপ ফ্রান্সিসের ১১ মিলিয়ন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট