সৌদি কর্তৃপক্ষ নারী শ্রমিকদের সুরক্ষায় ব্যবস্থা নেবে: সচিব

সৌদি কর্তৃপক্ষ নারী শ্রমিকদের সুরক্ষায় ব্যবস্থা নেবে: সচিব

সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ আশ্বাস দিয়েছে যে তাদের দেশে কর্মরত বাংলাদেশি নারী শ্রমিকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

সোমবার প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা রাজধানীর প্রবাসী কল্যাণ ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গত ২৭ অক্টোবর রিয়াদে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং সৌদি শ্রম ও সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে তৃতীয় জয়েন্ট টেকনিক্যাল কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় যেসব বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে- নারী কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য এ সংক্রান্ত আইটি প্ল্যাটফর্মে সংশ্লিষ্ট কর্মী, দুই দেশের রিক্রটিং এজেন্সি ও নিয়োগকর্তার পূর্ণ ঠিকানা এবং অন্যান্য তথ্য যুক্ত করা হবে, যে কর্মীরা কাজ ত্যাগ করেছেন তাদের পুলিশ পুনরায় নিয়োগকর্তার কাছে হস্তান্তর করবে না এবং কর্মী যত দিন কর্মরত থাকবেন তত দিন তার দায়-দায়িত্ব বাংলাদেশ ও সৌদি রিক্রটিং এজেন্সি বহন করবে।

গত চার বছরে ৫ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি নারী সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন এবং তারা সৌদি নিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন।

২০১৮ সালে প্রায় ১ হাজার ৫০০ নারী সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন বলে জানিয়েছে ব্র্যাক মাইগ্রেশন সেন্টার।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বর্তমানে সারাবিশ্বে প্রায় এক কোটি ২০ লাখ কর্মী রয়েছে। এর মধ্যে মধ্যপ্রচ্যে রয়েছে প্রায় ৫ লাখ ২৩ হাজার ৪৭১জন নরী কর্মী। মধ্যপ্রচ্যের ১১টি দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নারীকর্মী রয়েছে সৌদি আরবে। সেখানে বর্তমানে প্রায় দুই লাখ ৯৩ হাজার ৫৮৮ জন নারীকর্মী রয়েছে। এরমধ্যে বিভিন্ন কারণে দেশে ফেরত এসেছে ৮ হাজার ৫০৭ জন। তারা সাধারণত থাকা ও খাওয়া সমস্যা, বাচ্চা রেখের যাওয়াসহ নানাভাবে শারীরিক নির্যাতনের কারণে দেশে ফেরত আসতে চায়।

এছাড়া, সৌদিতে বাংলাদেশের সেভহোমে রয়েছে ১৪৬ জন যারা দেশে আসার অপেক্ষায় রয়েছে। আর সৌদি আরবের ডেকোরনেন্টারে রয়েছে ৪৬ জন। তবে সেভহোম থেকে আবার ৩৮০ জন নারীকর্মীর পুনরায় তাদের কর্মস্থলে ফিরে গেছেন। গত ১১ মাসে সৌদি আরব থেকে ১৯ জর নারীকর্মীর মরদেহ দেশে ফেরত এসেছে। তারা শারীরিক অসুস্থতাসহ নানা কারণে মৃত্যুবরণ করেছে।

গত ২৭ নভেম্বর রিয়াদে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং সৌদি শ্রম ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে ৩য় জয়েন্ট টেকনিক্যাল কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ