হাথুরুসিংকে নিয়ে বোমা ফাটালেন ম্যাথুজ

হাথুরুসিংকে নিয়ে বোমা ফাটালেন ম্যাথুজ

এশিয়া কাপের ব্যর্থতা না কাটতেই আরো বড় ধাক্কা খেলো শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট। অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়ে প্রধান কোচ এবং নির্বাচকদের বিরুদ্ধে এসএলসি’কে খোলা চিঠি দিয়ে বোমা ফাটালেন অ্যাঞ্জোলো ম্যাথুস। চিঠিতে এশিয়া কাপে দলের বাজে হারের দায় নিলেও, কোচ এবং নির্বাচকদের কঠোর সমালোচনা করেছেন ম্যাথুস।

এক সঙ্গে ৪ সিনিয়র ক্রিকেটার অবসরে চলে যাবার পর লঙ্কান দলটাকে নতুন করে সাজানোর দায়িত্বটা তুলে নিয়েছিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। ৪ বছর বেশ সফলতার সঙ্গে অধিনায়কত্ব করলেও, এক জিম্বাবুয়ে সফরের ব্যর্থতার কারণে সমালোচনার ঝরে পড়তে হয়েছিলো। অনেকটা রাগে-ক্ষোভে ২০১৭ সালে দায়িত্বটা ছেড়ে দেন অ্যাঞ্জেলো।

এরপর শুধু নীচের দিকেই গেছে লঙ্কানদের ক্রিকেট। দেশকে বাঁচাতে তখন এসএলসি প্রধান কোচের দায়িত্ব দেয় বাংলাদেশের সাবেক কোচ চান্দিকা হাথুরুসিংহেকে। গুরুর আসনে বসেই হাথুরু প্রথম উদ্যোগ নেন ম্যাথুসকে ফিরিয়ে আনার। হাথুরু ম্যাথুসকে প্রতিশ্রুতি দেন ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত লঙ্কানদের নেতৃত্বে থাকবেন ম্যাথুস।

কিন্তু, হঠাৎ এক ঝড়ে যেন সব ওলটপালট হলো। চলমান এশিয়া কাপে এই ঘটনা ঘটেছে। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের সঙ্গে বিধ্বস্ত হয়ে গ্রুপ পর্ব থেকেই কলম্বো ফিরেছে ৫ বারের এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কাকে। শুধু তাই না। ম্যাথুসের অধিনায়কত্ব নিয়েও হয়েছে সমালোচনা। লঙ্কানদের এমন বাজে পারফরমেন্সের পর দলে যে অদল-বদল হবে সেটা অনুমিতই ছিলো। তবে যেভাবে, হলো তার জন্য নিশ্চয়ই কেউই প্রস্তুত ছিলো না।

এসএলসি বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দিলো, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে আর অধিনায়ক থাকছেন না অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। যদিও কোন কারণ ব্যাখ্যা করেননি তারা। তখন পর্যন্ত ঠিক ছিলো সবই। তবে এরপরই বোমাটা ফাটালেন ম্যাথুস।

এক খোলা চিঠিতে এক হাত নিলেন কোচ হাথুরুসিংহে ও নির্বাচক কমিটির ওপর। জানালেন, তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা ও প্রতারণা করেছে তারা।

ম্যাথুস বলেন, ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার এসএলসিতে যে বৈঠক হয় তাতে নির্বাচকমণ্ডলী ও কোচ উপস্থিত ছিলেন। তারা ম্যাথুসকে ব্যর্থতার জন্য সরে দাঁড়াতে বলেন। এতে ম্যাথুস খুবই বিস্মিত হয়। এশিয়া কাপে দল হিসেবেই শ্রীলঙ্কা ভালো খেলিনি, কিন্তু তাই বলে বলির পাঁঠা কেন হবেন তিনি। এমন প্রশ্ন তোলেন ম্যাথুস।

এরপর চিঠিতে আরো কিছু ঘটনার উল্লেখ করেন ম্যাথুস, ‘দলের সব সিদ্ধান্ত কোচ ও নির্বাচকদের সমন্বয়েই নেয়া হতো। তাহলে, এখন হারের দায় কেন শুধু ম্যাথুসের একার? আমি এসএলসির সিদ্ধান্তকে সম্মান করে সরে দাঁড়াচ্ছি, তবে অন্যদেরও নিজেদের দায়িত্ববোধ সম্পর্কে জানা উচিত।

এর আগে কোচ থাকাকালীন বাংলাদেশের সিনিয়র খেলোয়াড় ও বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গেও বিভিন্নসময় ঝামেলায় জড়িয়েছেন হাথুরুসিংহে।

এদিকে, নতুন অধিনায়ক হিসেবে লঙ্কানদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে দিনেশ চান্ডিমালকে। তিনি এখন টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক। তার নেতৃত্বেই আসছে অক্টোবরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ খেলবে শ্রীলঙ্কা।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট