হেসে খেলে ম্যাচের সঙ্গে সিরিজও জিতল বাংলাদেশ

হেসে খেলে ম্যাচের সঙ্গে সিরিজও জিতল বাংলাদেশ

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে প্রত্যাশিত জয় পাওয়া বাংলাদেশ দ্বিতীয় ম্যাচে উড়িয়ে দিয়েছে সফরকারী জিম্বাবুয়েকে। ৭ উইকেটে জিতেছে টাইগাররা। ২৪৭ রানের টার্গেট তিন উইকেট হারিয়েই টপকে যায় স্বাগতিকরা। ৩৫ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় লাল-সবুজের জার্সিধারীরা। ফলে, এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করলো বাংলাদেশ।

বুধবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সহজ জয়ের ভিত গড়ে দেন ইমরুল কায়েস ও লিটন দাস। তাদের উদ্বোধনী জুটিতে আসে প্রায় দেড়শ রান। তবে আফসোস- সেঞ্চুরির বেশ কাছে গিয়েও উদযাপন করতে পারেনি দুই ওপেনার।

টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের পেসে ৭ উইকেটে জিম্বাবুয়েকে ২৪৬ রানে বেধে দেয় বাংলাদেশ। ব্রেন্ডন টেলরের ৭৫ রান সফরকারীদের লড়াই করার মতো সংগ্রহ এনে দিয়েছিল।

কিন্তু এই লক্ষ্যকে একেবারে সহজ করে ছেড়েছেন লিটন ও ইমরুল। দুজনের ১৪৮ রানের জুটিতে শুরু থেকে দাপট দেখায় বাংলাদেশ। বেশ আগ্রাসী ব্যাটিং করেন লিটন। ৪৬ বলে ৮ চার ও ১ ছয়ে ফিফটি হাঁকানোর পরও রানের গতি ধরে রাখেন তিনি। কিন্তু ২৪তম ওভারে সিকান্দার রাজার বলে কভারে মারতে গিয়ে তিরিপানোর ক্যাচ হন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ৭৭ বলে ১২ চার ও ১ ছয়ে ৮৩ রান করেন লিটন।

৫ রানের ব্যবধানে আরও একটি উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সিকান্দার তার পরের ওভারে ফজলে রাব্বিকে শূন্য রানে স্টাম্পিং করেন। দ্রুত ২ উইকেট হারালেও ইমরুল ও মুশফিকুর রহিমের জুটিতে জয়ের পথে এগিয়ে যেতে থাকে স্বাগতিকরা। দুজনের জুটিও ছিল পঞ্চাশ ছাড়ানো।

টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরির পথে ছিলেন ইমরুল। কিন্তু ১০ রানের আক্ষেপ থেকে গেল। দুর্বল শট খেলতে গিয়ে লং অফে এলটন চিগুম্বুরার ক্যাচ হন তিনি। ১১১ বলে ৭ চারে ৯০ রানে আউট হন এই ওপেনার।

দুই ওপেনারের গড়ে দেওয়া পথে এগিয়ে যেতে থাকেন মুশফিক ও মোহাম্মদ মিঠুন। ৪৫তম ওভারের প্রথম বলে ছয় মেরে দলকে জয়ের বন্দরে নেন মিঠুন। তাদের ৩৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ৩৫ বল বাকি থাকতে জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। ৩ উইকেটে ২৫০ রান করে তারা। মুশফিক ৪০ ও মিঠুন ২৪ রানে অপরাজিত ছিলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট