৪০০ বছর আগে হারানো পাখি ফিরিয়ে আনার চেষ্টা!

৪০০ বছর আগে হারানো পাখি ফিরিয়ে আনার চেষ্টা!

প্রায় ৪০০ বছর আগে নর্দার্ন ব্যাল্ড আইবিস নামের পাখিদের দেখা মিলত ইউরোপে। সম্প্রতি ফের এদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন একদল বিজ্ঞানী। বিজ্ঞানীরা বলছেন, বহু বছর ধরে ওই পাখিদের ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। আসলে শিকার ও মারাত্মক শীতল আবহাওয়ার কারণে এরা ইউরোপ থেকে হারিয়ে গিয়েছিল।

এই পাখিরা ওয়ালড্রাপ নামেও পরিচিত। অস্ট্রিয়া, জার্মানি, সুইজারল্যান্ডে একসময় এদের দেখা মিলত। পরে এদের স্থান ছিল শুধু চিড়িয়াখানায়। এরপর একদিন আচমকাই দেখা গেল অন্য রকম দৃশ্য। পাখিগুলো নিজের পথ চিনে নিতে পারছে না। ইউরোপ ছাড়াও ভূমধ্য সাগরীয় এলাকা ও পশ্চিম এশিয়ায় পাওয়া যেত এদের। কিন্তু সেখান থেকে ইউরোপে যেতে পারছে না তারা।

আইবিসকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন পাখিবিশারদ করিন্না ইস্টেরার। তাঁর সঙ্গে আছেন আরো কয়েকজন বিজ্ঞানী। ২০০২ সালে এই বিরল প্রজাতির পাখির ছোট একটা প্রজননক্ষেত্র পাওয়া যায় সিরিয়ায়। তবে আইএস আক্রমণের কারণে এই এলাকায়ও আর পাখিগুলোর খোঁজ মিলছে না। এবার আইবিস পাখিকে পথ চিনিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করছেন বিজ্ঞানীরা। মাইক্রোলাইট বিমান ওড়ানো হচ্ছে তাদের ওড়ার পথের সামনে দিয়ে, যাতে তারা পথ চিনে পাড়ি দিতে পারে ইতালিসহ অন্য ইউরোপীয় শহরে। বলা ভালো পাখিগুলি ‘ফলো’ করছে বিমানকে।

১০ বছর ধরে এই কাজ করছেন বিজ্ঞানীরা। জীববিজ্ঞানী জোহানেস ফ্রিত্জ পাখিগুলোর পথপ্রদর্শকের দায়িত্ব নিয়েছেন। পথ চিনিয়ে বাড়ি নেওয়া হচ্ছে আইবিসদের। ব্যবহার করা হচ্ছে জিপিএস ট্র্যাকারও। একেবারে ‘ভি’ আকারে উড়ে যায় আইবিস পাখির ঝাঁক। চেষ্টা করা হচ্ছে বিদ্যুতের তার, মোবাইল টাওয়ার ইত্যাদির হাত থেকে যাতে পাখিগুলোকে বাঁচানো যায়। কিছু পাখি যদিও মাঝপথে ফিরে গেছে। কিন্তু ৮৪টি পাখিকে এরই মধ্যে মধ্য ইউরোপে ফিরিয়ে এনেছেন বিজ্ঞানীরা। আইবিস পাখিকে আল্পস পর্বতের চূড়ায় আবারও দেখা যাবে—এই স্বপ্নে বিভোর এখন বিজ্ঞানীরা।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট