আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো কেন্দ্রীয় কারাগার

আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো কেন্দ্রীয় কারাগার

আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার। কঠোর নিরাপত্তায় ভোর থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ৬ হাজার ৫শ’ ১১ বন্দিকে নেয়া হয়েছে কেরানীগঞ্জে। ১৭৮৮ সালে নির্মিত লাল দালান খ্যাত এ কারাগারটিকে আগামীতে যাদুঘর হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

ভোরের আলো ফোটার পরপরই শুরু হয় ২৩৮ বছরের পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কেরানীগঞ্জের স্থাপিত এশিয়ার সবচে বড় কারাগারে বন্দিদের স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়। বিশাল বহরে করে চলছে বন্দী নেয়া। সারিবদ্ধ প্রিজন ভ্যানের এ দৃশ্য দেশের জন্য এক ঐতিহাসিক ঘটনা। এক একটি বহরে তিন শতাধিক আসামি নিয়ে যাওয়া হয়। প্রিজন ভ্যানের সঙ্গে থাকছে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স।

বন্দি স্থানান্তরকে ঘিরে জোরদার করা হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পুরান ঢাকা থেকে কেরানীগঞ্জ পর্যন্ত রাস্তার মোড়ে মোড়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়। পাশাপাশি কাজ করেছে বিজিবি। নিয়ন্ত্রণ করা হয় যান চলাচল।

নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগার থেকে নারী বন্দিদের এরইমধ্যে গাজীপুরে কাশিমপুর কারাগারে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন স্পর্শকাতর মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদিদের আগেই স্থানান্তর করা হয় বলে জানায় কারা কর্তৃপক্ষ। পুরুষ বন্দীদের জন্য নির্মিত এই কারাগারকে বলা হচ্ছে কেবল শাস্তি নিশ্চিত করাই নয়, সংশোধানাগার হিসেবে গড়ে উঠবে এটি।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক