রাশি অনুযায়ী বন্ধু চেনার উপায়

রাশি অনুযায়ী বন্ধু চেনার উপায়

কেউ বেস্ট ফ্রেন্ড, কেউ আবার জাস্ট ফ্রেন্ড। বন্ধু সবাই সমান হয় না। সম্পূর্ণ বিশ্বাস ও নিজেদের বোঝাপড়ার উপর নির্ভর করে বন্ধুত্ব। ছোটোবেলা থেকে জীবনের বয়ঃসন্ধি পর্যন্ত, ইয়ে দোস্তি হাম নেহি তোড়েঙ্গে ব্যাপারটা থাকে কারোর কারোর মধ্যে। আবার কেউ খুব পরিচিত হয়েও সেই অর্থে ভালো বন্ধু হয়ে উঠতে পারে না। বন্ধুত্বের বন্ধন গড়ে ওঠে রাশি অনুযায়ী। আজ ফ্রেন্ডশিপ ডে। তাই জেনে রাখুন কোন রাশির জাতক/জাতিকা আপনার ভালো বন্ধু এবং কার সঙ্গে বন্ধুত্ব টিকবে সারা জীবন।

মেষ রাশি: এই রাশির জাতক/জাতিকা নতুন নতুন বন্ধু তৈরি করতে ভালোবাসেন। কিছুটা জেদি, আবার কিছুটা ডমিনেটিংও হন। তবে বিপদেআপদে বন্ধুর পাশে দাঁড়াতে দু’বার ভাবেন না। মেষ রাশির সঙ্গে সিংহ বা ধনু রাশির ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। কুম্ভ, তুলা বা মিথুন রাশির সঙ্গে সম্পর্ক মন্দ হয় না। কিন্তু বৃষ, কন্যা বা মকর রাশির মানুষজন ভালো বন্ধু হতে পারেন, আবার নাও হতে পারেন।

বৃষ রাশি: তোড়েঙ্গে দম মাগার তেরা সাথ না ছোড়েঙ্গে। এমনই বন্ধুত্ব নেভায় বৃষ রাশির জাতকরা। একবার কারও সঙ্গে বন্ধুত্ব হলে জীবনভর সেই সম্পর্ক অটুট রাখে। তবে সহজেই চট করে কারও সঙ্গে বন্ধুত্ব করেন না বৃষ রাশির জাতকরা। কন্যা ও মকর রাশির জাতকদের সঙ্গে বৃষ রাশি ভালো বন্ধুত্ব হয়। কর্কট, বৃশ্চিক ও মীন রাশির সঙ্গে সাধারণ বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। মিথুন, তুলা ও কুম্ভ রাশির জাতকরা কখনও বৃষ রাশির ভালো বন্ধু হন না।

মিথুন রাশি: কথাবার্তায় নম্রতা ও ভালোবাসায় সকলের মন জয় করে নেন মিথুন রাশির জাতকরা। এবং বন্ধুদের মধ্যেও সেই গুণ খুঁজতে থাকে। কঠিন সময়ে সুপরামর্শ দেওয়ার ক্ষেত্রে মিথুন রাশির জুড়ি মেলা ভার। তুলা ও কুম্ভ রাশি জাতকরা মিথুন রাশির জাতকদের ভালো বন্ধু। তবে সিংহ, মেষ বা ধনু রাশির জাতকদের সঙ্গে বন্ধুত্ব টেকে না।

কর্কট রাশি: ভরসা ও বিশ্বাসের উপর ভর করে কর্কট রাশির জাতকরা খুব ভালো বন্ধু হয়ে ওঠেন। বন্ধুর সমস্যার সমাধান করা এবং সুপরামর্শ দিয়ে থাকেন। তবে নিজের সমস্যা ও অনুভূতি বন্ধুর সঙ্গে সহজে ভাগ করে নিতে পারেন না। নিজের রাশির জাতকদের সঙ্গে সবচেয়ে ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। তাছাড়া, বৃশ্চিক ও মীন রাশির জাতকদের সঙ্গেও ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। বৃষ, কন্যা ও মকর রাশির জাতকদের সঙ্গে মোটামুটি সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে মেষ, সিংহ বা ধনু রাশির জাতকদের সঙ্গে যতটা সম্ভব দূরত্ব রাখাই ভালো।

সিংহ রাশি: খুব সহজেই সকলের সঙ্গে মিশতে পারেন সিংহ রাশির জাতকরা। সকলের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নেন। বন্ধুর জন্য কখনও মনে নেতিবাচক চিন্তাভাবনা আনেন না। খুব সহজেই বন্ধুদের ভুলত্রুটি মাফ করে দেন। বন্ধুদের যথাযোগ্য সম্মান দেন। নিজের রাশা ছাড়া মেষ ও ধনু রাশির জাতকদের সঙ্গে ভালো বন্ধত্ব গড়ে ওঠে সিংহ রাশির জাতকদের। মিথুন, তুলা ও কুম্ভ রাশির জাতকদের সঙ্গে সাধারণ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে কর্কট, বৃশ্চিক ও মীন রাশির জাতকদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করার আগে দু’বার ভাবা দরকার। কে বলতে পারে, সামনে ভালো ব্যবহার করলেও পিছনে গিয়ে আপনার দুর্নাম করবে না।

কন্যা রাশি: ইমোশনের থেকে অনেক বেশি বুদ্ধিমত্তার কদর করেন কন্যা রাশির জাতকরা। অনেক বেশি সমঝদার হন। বন্ধুদের সমস্যা বোঝা এবং তাকে সাহায্য করতে সবার আগে এগিয়ে আসেন। নিজের রাশি এবং বৃষ ও কন্যা রাশির জাতকদের সঙ্গে বন্ধুত্ব অনেকদিন পর্যন্ত টেকে। মেষ, সিংহ ও ধনু রাশির সঙ্গে ভালো সম্পর্কও যেমন গড়ে উঠতে পারে, তেমনই সম্পর্ক খারাপ হতে পারে। তবে তুলা, মিথুন ও কুম্ভ রাশির জাতকদের থেকে দূরে থাকুন।

তুলা রাশি: সবার সঙ্গে খুব সহজেই মিশতে পারেন তুলা রাশির জাতকরা। অনেক ধরনের বন্ধু থাকে তাঁদের। বন্ধুত্বের অটুট রিস্তা বজায় রাখার জন্য যাবতীয় সবকিছু করতে পারেন তুলা রাশির লোকজন। মিথুন ও কুম্ভ এবং নিজের রাশির জাতকরা ভালো বন্ধু হয়ে ওঠে। মেষ, সিংহ ও ধনু রাশির জাতকদের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে উঠবে তেমন একটা গভীর সম্পর্ক গড়ে ওঠে না। কর্কট, বৃশ্চিক ও মীন রাশির লোকজনের সঙ্গে বন্ধুত্ব টিকতেও পারে আবার নাও টিকতে পারে। বৃষ কন্যা ও মকর রাশির জাতকরা ভালো বন্ধু হয়ে উঠতে পারে না।

বৃশ্চিক রাশি: সত্যিকারের বন্ধু যদি হয়, তবে সে বৃশ্চিক রাশির জাতকরা। বন্ধুদের সম্পর্ক কীভাবে নেভাতে হয়, তাঁরা খুব ভালো বোঝেন। তবে স্মৃতিশক্তি প্রখর হওয়ার কারণে বন্ধুদের ভুলত্রুটি সহজে ভুলে যেতে পারেন না। কর্কট, বৃশ্চিক ও মীন রাশির লোকজনের সঙ্গে গলায় গলায় বন্ধুত্ব হয় বৃশ্চিক রাশির জাতকদের। মিথুন, তুলা ও কুম্ভ রাশির জাতকদের সঙ্গে বন্ধু হলেও তেমন একটা সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে না। মেষ, সিংহ ও ধনু রাশির জাতকরা এঁদের কখনও ভালো বন্ধু হন না।

ধনু রাশি: মনে যা মুখেও তা। ধনু রাশির জাতকদের সম্পর্কে এই কথা বলা যায়। কঠিন সত্যও এঁরা যেমন সহজেই মুখের উপর বলতে পারেন, তেমনই প্রশংসাও করতে ভোলেন না। মনে কোনও নেতিবাচকতা থাকে না ধনু রাশির জাতকদের। তাই চোখ বুজে যদি ভরসা করতে চান, ধনু রাশির জাতকদের জুড়ি মেলা ভার। মেষ, সিংহ ও ধনু রাশির জাতকদের সঙ্গে তাঁদের সখত্যা বেশি থাকে। কর্কট বৃষ ও মীন রাশির জাতকদের এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ, এরা ভালো বন্ধু হতে পারেন না।

মকর রাশি: জীবনে একজন ভালো বন্ধু প্রয়োজন সবার থাকে। যার সঙ্গে সবকিছু শেয়ার করা যায়। যে কোনও পরিস্থিতিতে কারও সঙ্গ পাওয়া যায়। এইসব দিক থেকে মকর রাশির জাতকরা খুব ভালো বন্ধু হয়ে ওঠে বৃষ ও কন্যা রাশির জাতকদের। কর্কট, বৃশ্চিক ও মীন রাশির জাতকদের সঙ্গে সম্পর্ক সাধারণ হয়। মিথুন, তুলা ও কুম্ভ রাশির লোকজন এড়িয়ে চলুন। এদের সঙ্গে বন্ধুত্ব না করাই ভালো।

কুম্ভ রাশি: বন্ধুদের জন্য সদা প্রস্তুত। বিপদে আপদে বন্ধুদের পাশে থাকা এবং সবসময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন কুম্ভ রাশির জাতকরা। নিজের রাশি এবং মিথুন ও তুলা রাশির জাতকদের সঙ্গে ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে কুম্ভ রাশির জাতকদের। কিন্তু মিথুন, তুলা ও কুম্ভ রাশির জাতকদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করা ঠিক নয়।

মীন রাশি: মীন রাশির জাতকরা দয়ালু ও বিশ্বস্ত হন। বন্ধুদের সমস্যা নিজের কাঁধে নিতে দু’বার ভাবেন না। কর্কট, বৃশ্চিক ও মীন রাশির জাতকরা ভালো বন্ধু হয়ে ওঠেন। মিথুন, তুলা ও কুম্ভ রাশির জাতকদের সঙ্গে মোটামুটি সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে মেষ, সিংহ ও ধনু রাশির জাতকদের থেকে দূরে থাকুন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট