ফেসবুক বন্ধ না করেই প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে পেরেছি : শিক্ষামন্ত্রী

ফেসবুক বন্ধ না করেই প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে পেরেছি : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষার্থীদের যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে সৃজনশীল পদ্ধতির বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল (জেডিসি) পরীক্ষা চলাকালে ধানমণ্ডির একটি কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ফেসবুক বন্ধ না করেই যখন আমরা প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে পেরেছি, অতএব ফেসবুক বন্ধ করার দরকার নেই। আমাদের গোয়েন্দা বাহিনী এ বিষয়ে কড়া নজরদারি করছে। সকাল ১০ টা থেকে সারা দেশে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল (জেডিসি) পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, এ বছর ২৮ হাজার ৭৬১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭৭৫ জন শিক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।

জেএসসিতে পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ৩৮ হাজার ৩০৩ জন। এর মধ্যে ৯ লাখ ৪৯ হাজার ১৪৫ জন ছেলে এবং ১০ লাখ ৭৫ হাজার ২২৮ জন মেয়ে।

অন্যদিকে, জেডিসিতে পরীক্ষার্থী ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৪৭২ জন। এর মধ্যে ১ লাখ ৭৫ হাজার ২২৮জন ছাত্র এবং ১ লাখ ৯৯ হাজার ২৪৪ জন ছাত্রী।

এছাড়াও, বিদেশের ৮টি কেন্দ্র থেকে ৬৮১ জন শিক্ষার্থী এবারের জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।

গত বছরের তুলনায় এবার এ দুটি পরীক্ষায় মোট শিক্ষার্থী বেড়েছে ৮৬ হাজার ৮৪২ জন। এ বছর ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭৭৫ জন শিক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেবে। গত বছর পরীক্ষার্থী ছিল ২৩ লাখ ২৫ হাজার ৯৩৩ জন।

আগামী ১৭ নভেম্বর পরীক্ষা শেষ হবে।ফলাফল ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে দেয়ার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্র

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক