নারায়ণগঞ্জে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

নারায়ণগঞ্জে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় বাড়ির সীমানায় মাটি কাটা নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে ছোট ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে বড় ভাই খুন হয়েছেন। সোমবার সকালে উপজেলার পশ্চিম কান্দারগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. মোসলেউদ্দিন উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের পশ্চিম কান্দারগাঁও গ্রামের মৃত পিয়ার আলীর ছেলে। এ ঘটনার পর থেকেই ছোট ভাই মো. খলিল পলাতক রয়েছে।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সকাল পৌনে ৭টার দিকে বড় ভাই মোসলেউদ্দিন বাড়ির সীমানার এক কোনা থেকে মাটি কেটে তার ঘরের সামনের নিচু স্থান ভরাট করছিলেন। এ সময় ছোট ভাই খলিল তাকে ওই স্থান থেকে মাটি কাটতে নিষেধ করেন। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বড় ভাই ছোট ভাইকে মারধর করে। পরে ছোট ভাই ক্ষিপ্ত হয়ে তার ঘর থেকে একটি ধারালো ছুরি এনে বড় ভাই মোসলেউদ্দিনের গলার নিচে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলে বড় ভাই মোসলেউদ্দিন মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এসময় মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

ঘটনার পরপরই ছোট ভাই বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহতের স্ত্রী জিয়াসমিন আক্তার জানান, আমার বড় মেয়ের বিয়ে সামনে। তাই ঘরদোয়ার ঠিকঠাক করতে আমার স্বামী বাড়ির সীমানার নিচু জায়গা থেকে মাটি কেটে আমাদের ঘরের সামনে একটু উঁচু করছিল। এসময় আমার দেবর খলিল এসে বাধা দেয়। পরে খলিল আমার স্বামীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করলে তিনি মারা যান। আমি আমার স্বামীর হত্যার বিচার চাই।

সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ মো. মঞ্জুর কাদের পিপিএম জানান, ছোট ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে বড় ভাইয়ের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক