তামিমদের হারিয়ে শীর্ষে সাকিবের ঢাকা

তামিমদের হারিয়ে শীর্ষে সাকিবের ঢাকা

বিপিএলের দ্বিতীয় পর্ব আজ বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে দিনের প্রথম ম্যাচে সাকিবের ঢাকা ডায়নামাইটসের প্রতিপক্ষ তামিম-তাসকিনের চিটাগাং ভাইকিংস ১৯ রানে হেরেছে। টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪৮ রান তোলে ঢাকা ডায়নামাইটস। জবাবে ১২৯ রানে শেষ হয় ভাইকিংসদের ইনিংস।

 ১৯ রানে হেরে এখনো পয়েন্ট টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে তামিমের দল। ৫ ম্যাচে মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে চিটাগাং।

১৪৯ রানের লক্ষ্যে নেমে ইনিংসের তৃতীয় ওভারে রানআউট হয়ে ফেরেন জহুরুল ইসলাম। মাত্র ৬ রান করেন এই ব্যাটসম্যান। এরপর সপ্তম ওভারে নাসির ফিরিয়ে দেন এনামুল হক বিজয়কে। ১৫ বলে এক ছয়ে ১৭ রান করেন বিজয়।

নাসিরের করা আগের বলেই ছয় মেরেছিলেন তিনি। পরের বলে আবার ডাউন দ্য উইকেটে এসে উইকেট বিলিয়ে দেন বিজয়। এরপর মাহমুদুলকে নিয়ে জুটি বাঁধেন তামিম। ২৮ রান যোগ করেন তারা। দলীয় ৬৬ রানে ব্রাভোর বলে মোসাদ্দেকের তালুবন্দি হন তামিম। ৩৫ বলে করেন ২৬ রান ভাইকিংস অধিনায়ক।

১৫তম ওভারে ২০ রান করে মাহমুদুলও বিদায় নেন। এরপর দ্রুতই বেশ কয়েকটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় চিটাগাং। মোহাম্মদ নবী, গ্রান্ট ইলিয়টরা কিছুই করতে পারেননি আজ। শেষ পর্যন্ত ১২৯ রানেই থেমে যায় স্বাগতিকদের ইনিংস।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪৮ রান তোলে ঢাকা ডায়নামাইটস। শুরুটা অবশ্য ভালো করেছিল ঢাকা। তবে ইনিংসের মাঝপথে এতে পথ হারায় বিপিএলে সর্বাধিকবার শিরোপা জয়ী দলটি।

এক সময় ২ উইকেটে ৭২ রান ছিল ঢাকার স্কোর। তবে নাসির ও সাঙ্গাকারার বিদায়ের পর ব্যাটিংয়ে ছন্দপতন ঘটে ঢাকার। প্রথম ১০ ওভারে ঢাকা তোলে রান। বাকি ১০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে আর মাত্র ৭৫ রান সংগ্রহ করে ঢাকা।

ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ঝড় তোলেন মেহেদী মারুফ।  ৬ চার ও ১ ছক্কায় ২০ বলে ৩৩ রান করেন তিনি। তবে নবীর বলে সুইপ করতে গিয়ে লেগ বিফোর হন মারুফ। ৪১ রানে উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পরও রানের চাকা সচল রাখেন কুমার সাঙ্গাকারা ও নাসির হোসেন।

দশম ওভারে টাইমাল মিলস ঢাকা শিবিরে জোড়া আঘাত করেন। নাসির হোসেনকে বোল্ড করার পর কুমার সাঙ্গাকারাকেও ফিরিয়ে দেন এই ইংলিশ পেসার। এরপর সাকিব ও ব্রাভোকেও হারায় ঢাকা। তবে সৈকত এক প্রান্ত আগলে রেখে করেন ৩৫ রান। ফলে ১৪৮ রানের সম্মানজনক সংগ্রহ পায় দলটি। টাইমাল মিলন ও মোহাম্মদ নবী নেন তিনটি করে উইকেট।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট