বিয়েতে কনের বয়স ১৮ ও বরের ২১ বছরই থাকছে

বিয়েতে কনের বয়স ১৮ ও বরের ২১ বছরই থাকছে

‘বিশেষ প্রেক্ষাপটে’ আদালতের নির্দেশনা এবং মা-বাবার সম্মতিতে অপ্রপাপ্তবয়স্ক মেয়েদের বিয়ের সুযোগ রেখে ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৬’ অনুমোদন দিয়েছে সরকার। খসড়া আইনে ছেলেদের বিয়ের বয়স ২১ বছর এবং মেয়ের বয়স ১৮ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই আইনের খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। তবে বৈঠকে সরকারি কর্মচারী আইন-২০১৬’ অনুমোদন পায়নি। এটি আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে পুনরায়  মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ ও ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ বছর। তবে বিশেষ প্রেক্ষাপটে অপ্রাপ্ত বয়স্ক কোনো নারীর সর্বোত্তম স্বার্থে আদালতের নির্দেশনাক্রমে মাতা-পিতার সমর্থনে বিয়ে হলে এ আইনের অধীনে অপরাধ হবে না। এক্ষেত্রে খসড়ায় কোনো বয়স নির্ধারণ করা হয়নি।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, আইনে বাল্যবিয়ের শাস্তি ও জরিমানার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে। বাল্য বিয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ দুই বছর ও সর্বনিম্ন দুই মাস এবং সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা ও সর্বনিম্ন দশ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। তবে বিশেষ প্রেক্ষাপটে আদালতের নির্ধারিত  কোনও বাল্য বিয়ে এই আইনের অন্তর্ভুক্ত হবে না।

তিনি আরও জানান, জন্ম তারিখ প্রমাণের জন্য বর ও কনের জন্ম সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্র, পিএসসি, জেএসসি, এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষার সনদ এবং পাসপোর্টে উল্লেখিত তারিখ গ্রহণযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক