উদ্বোধন হল ‘প্রজেক্ট বই টোকাই’-এর প্রথম পাঠাগার

উদ্বোধন হল ‘প্রজেক্ট বই টোকাই’-এর প্রথম পাঠাগার

সামাজিক সংগঠন হুইসেল বাংলাদেশ সব বয়সী জ্ঞানপিপাসু সুবিধা বঞ্চিতদের বই পড়ার সুবিধা দিতে ব্যতিক্রম ধর্মী উদ্যোগ নিয়েছে। প্রজেক্ট বই টোকাই নামের এই আয়োজনের মাধ্যমে সবার কাছ থেকে পুরাতন বই সংগ্রহ করে প্রথম পাঠাগার উদ্বোধন করেছে সংগঠনটি। এই পাঠাগারটি প্রচেষ্টা স্কুল, ৪৬ উত্তর বেগুনবাড়ি, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা – ১২০৮ এই ঠিকানায় গত শুক্রবার সকলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। প্রায় ৮ মাস ধরে হুইসেল বাংলাদেশের সদস্যরা ‘বই টোকাই’ পরিচয়ে সবার দ্বারে দ্বারে গিয়ে সংগ্রহ করেছে বেশ কিছু নতুন ও পুরানো বই। কেউ বা আবার শুধুমাত্র ফেসবুকে হুইসেল বাংলাদেশের আহবানে সারা দিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বই পাঠিয়েছে।

হুইসেল বাংলাদেশ পাঠাগার উদ্বোধন উপলক্ষে প্রচেষ্টা স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের জন্য সাধারণ জ্ঞানের কুইজের আয়োজন করে । বাচ্চাদের মনোবল বাড়াতে কুইজে অংশগ্রহণকারী সকল ছাত্রছাত্রীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা সহ সেরা তিনজনকে বিশেষ পুরস্কার প্রদান করে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উভয় সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ সকল সদস্যারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে হুইসেল বাংলাদেশের ফাউন্ডার শাকিল মাহমুদ বলেন সমাজকে পরিবর্তন করতে হলে জ্ঞানের প্রয়োজন। জ্ঞান আহরণের সবচেয়ে ভাল মাধ্যম বই। আমরা মানুষের ঘরে পরে থাকা অলস বই সংগ্রহ করে পাঠাগার স্থাপন করেছি। ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, নোয়াখালী সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় হুইসেল বাংলাদেশের প্রতিনিধি রয়েছে। আমি যুব সমাজকে আহবান করছি আপনারাও নিজ নিজ অবস্থান থেকে পরিবর্তনের উদ্যোগ নিন। দেশ আমাদের মা, আমাদের মা কে আমরা সেরা অবস্থানে দেখতে চাই। বক্তব্যের শেষাংশে এই অনুষ্ঠানে যাবতীয় সহযোগিতার জন্য প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশনকে ধন্যবাদ জানায়।

কো-ফাউন্ডার মাহিদুল ইসলাম (নকীব) বলেন বই বিমুখ মানুষকে বই মুখি করার জন্য আমাদের এই আয়োজন। দেশের যুব সমাজ যখন পর্যাপ্ত শিক্ষার অভাবে বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে তখন আমরা এই উদ্যোগের মাধ্যমে দেশের পরিবর্তনে অংশ নেয়ার চেষ্টা করছি। আমাদের সদস্যারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে এই পাঠাগার স্থাপন করছে। সকলের সহযোগিতা পেলে আমরা দেশের প্রতিটি এলাকায় পাঠাগার করবো।

অনুষ্ঠানে প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বক্তব্য প্রদান করেন মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান। উনি এমন ব্যাতিক্রমধর্মী উদ্যোগের জন্য হুইসেল বাংলাদেশের প্রশংসা করেন। সেই সাথে দেশবাসীকে প্রজেক্ট বই টোকাই এর সাথে একাত্মতা প্রকাশের আহ্বান জানান।

এই দুইটি সংগঠন ভবিষ্যতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৪ই অক্টোবর ‘দেশ আপনাকে কি দিলো সেটা বড় কথা নয়, আপনি দেশকে কি দিলেন সেটাই বড় কথা’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ‘পরিবর্তনের পথে – যাত্রী চাই’ শিরোনামে হুইসেল বাংলাদেশ যাত্রা শুরু করে। উদ্দেশ্য প্রচলিত ঘুণে ধরা সিস্টেমের পরিবর্তন। যাত্রার শুরুতেই প্রজেক্ট ‘একটি কম্বল, একটি জীবন’ এর মাধ্যমে উত্তর বঙ্গের শীতার্ত মানুষদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসে। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইতিবাচক খবর প্রচার, জরুরী প্রয়োজনে রক্ত সংগ্রহ করে দেয়ার কাজ করে আসছে। সম্প্রতি হুইসেল ব্লাড লিঙ্ক এর ব্যানারে বিভিন্ন এলাকায় বিনামূল্যে রক্তের নির্ণয় কর্মসূচি, স্বেচ্ছায় রক্তদানে মানুষকে উৎসাহিত করার দায়িত্ব পালন করছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক