কণ্ঠশিল্পী আসিফকে যে কারণে পাগল বললেন মুশফিক!

কণ্ঠশিল্পী আসিফকে যে কারণে পাগল বললেন মুশফিক!

বরিশাল বুলসের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর ও গায়ক আসিফ আকবরের ওপর বেজায় চটেছেন মুশফিকুর রহিম। এমনকি আসিফকে ‘পাগল’ বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। গতকাল বরিশাল বুলসের অধিনায়ক বলেন, ভালো করতে পারছি না, এটা অন্য কথা। কিন্তু উনি যেভাবে লিখেছেন, পাগল ছাড়া একজন মানুষের পে এটা লেখা সম্ভব নয়।

গত সোমবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে আসিফ আকবর লিখেছেন, সব নির্মল অনুভূতিতে পানি ঢেলে দিয়েছে সন্দেহ। ১৭, ১৮, ১৯ এবং ২০ নম্বর ওভারগুলোতে ব্যাটসম্যানরা হয়ে যায় প্রতিবন্ধী আর বোলাররা হয়ে যায় বাঘ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট জুয়ার অপর নাম। দর্শক হিসেবে মাঠে যাই খেলা দেখতে আর আমাদের নিয়ে খেলা হয় টেবিলে। সন্দেহ ঢুকেছে প্রেসবক্সেও।

অন্য কোনো দলের কথা বলব না। আমার দল বরিশাল বুলসের বিদেশি এবং দেশি খেলোয়াড়দের একটা অংশ ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত আমি নিশ্চিত, প্রমাণ নেই। তবে বিসিবি এবং আকসু যদি তীক্ষè দৃষ্টি দেয় তা হলে অবশ্যই তারা প্রমাণ খুঁজে পাবেন আমার বিশ্বাস। গরিব দল বুলস, ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের জন্য খারাপ লাগছে। তবে আমি কৃতজ্ঞ তাদের প্রতি। আত্মঘাতী গোলে হেরে যাওয়ার জন্য বরিশাল বুলসের জন্য সমবেদনা।

আসিফ আকবরের পোস্ট করা এমন স্ট্যাটাসে ক্ষুব্ধ মুশফিক। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, আমরা দেশি-বিদেশি সবাই এত কষ্ট করে খেলছি, এত পেশাদারিত্ব, এটাই আমাদের রুটি-রোজগার, এটার সঙ্গে যদি কেউ বেইমানি করে, এর চেয়ে বড় কিছু আর হতে পারে না। উনি (আসিফ) যেটা লিখেছেন, খুব কষ্ট লাগছে। উনি এটা মাথা ঠিক অবস্থায় লিখেছেন নাকি নিজেও জানি না।

তিনি আরও বলেন, আমার প্রশ্ন করতে ইচ্ছে করছে ওনাকে, সামনে পেলে প্রশ্ন করবÑ কোন পরিস্থিতি দেখে আপনার মনে হয়েছে, বা কোন দেশি বা বিদেশি খেলোয়াড় এসবে জড়িত। উনি লিখেছেন যে, উনি নিশ্চিত, কিন্তু প্রমাণ নেই। এটা কোনো ধরনের ভাষা! এটাই বলে দেয় উনি কোনো অবস্থাতেই সুস্থ মস্তিষ্কে ছিলেন না।

মুশফিক বলেন, তারও খেলার প্রতি টান আছে, অনেকভাবে জড়িত ছিলেন। এরকম লোকের কাছ থেকে এরকম অভিযোগ আসাটা হতাশাজনক। উনি বলতে পারতেন যে, আমাদের খেলায় উনি হতাশ। সেটা হতেই পারে। শুধু উনি কেন, বরিশালবাসী সবাই হতাশ। ভালো করতে পারছি না, এটা অন্য কথা। কিন্তু উনি যেভাবে লিখেছেন, পাগল ছাড়া একজন মানুষের পে এটা লেখা সম্ভব নয়।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট