অন্ত্য সময়ের কাব্য

অন্ত্য সময়ের কাব্য

২৫ তুমি বেদনা বিধূর হৃদয় আকাশে
বিষন্নতার সুর বাজে আজো বাতাসে
২৫ এলেই বসন্তের রং হয় ফ্যাকাসে
বসন্ত বাতাস বুকে বাজে হাহাকার
আজো শুনি অন্ধকারের আর্তচিৎকার
মর্টারশেল আর স্টেনগানের ঝাঁঝাঁলো শব্দ
দিকবিদিক ছুটে চলেছে চারিদিক
বৃদ্ধ শিশু নারী সব একাকার
সদ্য শিশু মায়ের প্রশ্বাসের পরশের জন্য
বৃদ্ধ তার লায়েক সন্তানের নির্ভরতা জন্য
নারী তার সমস্ত মমতার জন্য প্রতিক্ষায়।
এমনি অবোধ সময় সামনে তাকিয়ে ছোটে
ক্ষয়ে যায় নয়টি মাস লক্ষ তাজা প্রান
স্বজন হারার কান্নায় ঘুম ভেঙে দেখি
শিউলি গাছটিও ফুঁপিয়ে প্রতিবেশির জানালায় ফুটে ওঠে
চৈত্র আসে পাতা ঝরা দেখি মন খারাপ হয়
৭১ মনে পড়ে
শুধু আর্তনাদ ভাসে
আমরা ভুলে যাই সে দহনবেলার কাব্য
শুধু কবিতারা মোমবাতি নিয়ে হাঁটে
এভাবে বৃত্তের কোলাহলে চেতনা রঙে
পরিধির থেকে ছিটকে কবিতা লিখি
এখনো নিবিড় পঁচা গন্ধ পাই
অন্ধকারে শোনা যায় শেয়ালের ডাক
আকাশে উড়ে শকূন
হানাদার ধারাবাহিকতায় বুড়িগঙ্গায়
ভেসে উঠে লাশ
গনতন্ত্রের নামে এখনো স্বৈরাচার
অবিশ্বাসী বিশ্বাসে ক্ষত বিক্ষত
এখনো মীরজাফরা জন্মাচ্ছে এ দেশে
পলাশী প্রান্তরে আজও-
সিরাজের আত্না কাঁদে
রবার্ট ক্লাইভের ভয়ংকর সেই ক্রূর অট্টহাসি হাসে
এখন আর বাতাসে বারুদের গন্ধ পাই না
বাতাসে ভেসে বেড়ায় হিংসা নিষ্ঠুরতা
এভাবেই হাওয়া বাতাসে উন্নয়নের ঘ্রাণ
পথের ধুলো নর্দমা আবর্জনায় পরিত্যক্ত গনতন্ত্র
রক্তের বিনিময়ে রেখে যাওয়া স্বাধীনতা
ভিজিএফ কার্ডের জীর্ণ মলাটের তেল চিটচিটে
বৃদ্ধের শ্বাসে কেঁপে ওঠা আয়ুর ত্রস্ত সীমানায়
ওত পেতে থাকা সুবিধাভুগীর দখল
এখন বুঝি ত্যাগে অর্জিত চেতনা আজ পন্য
গন্য করে বেপারী’রা
অন্ত্য সময়ে আজ ওদের বানিজ্যেবাহন
স্বাধীনতা!

সম্পর্কিত সংবাদ
শামসুদ্দিন হীরা