পোলার্ডের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি সঞ্জয় মাঞ্জরেকার

পোলার্ডের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি সঞ্জয় মাঞ্জরেকার

কাইরন পোলার্ডকে খুব ভালো কোনো ব্যাটসম্যানের কাতারে ফেলেন না সঞ্জয় মাঞ্জরেকার। ভারতের সাবেক এই ব্যাটসম্যানের দৃষ্টিতে ক্যারিবীয় তারকা এমন একজন ব্যাটসম্যান, যে ৬-৭ ওভার বাকি থাকতে মাঠে নেমেই যা কিছু করতে পারেন। ৩ নম্বরে ব্যাট করে জুটি গড়ে তোলা, সিঙ্গেল নিয়ে রানের চাকা সচল রাখা—এসব ধাতে নেই পোলার্ডের।

টেলিভিশন ভাষ্যকার হিসেবে মাঞ্জরেকারের বলা এই কথাগুলো বেজায় চটিয়ে দিয়েছে পোলার্ডকে। আইপিএলে কলকাতা নাইটরাইডার্সের বিপক্ষে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের দুর্দান্ত জয়ের পর পোলার্ড মাঞ্জরেকারের ওপর নিজের রাগ আর সামলে রাখতে পারেননি। টুইটারে উগরে দিয়েছেন সব ক্ষোভ।

কলকাতা-মুম্বাই ম্যাচে ১৭ বলে ১৭ রান করে আউট হন পোলার্ড। ব্যাট করেছেন ৬ নম্বরে। মাঞ্জরেকার তাঁর সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন, ‘পোলার্ডের ব্যাপারে আমি বলব, আমি ওকে ৬-৭ নম্বরের ব্যাটসম্যানই মনে করি। যদি তার ৩ নম্বরে ব্যাট করার ক্ষমতা না থাকে, বাউন্ডারি মারতে অসুবিধা হওয়ার সময় তার ব্যাটিংয়ে যদি সিঙ্গেলস বের করার বৈচিত্র্য না থাকে, তাহলে কী ওকে ব্যাটসম্যান হিসেবে ধরা যাবে? আমার মনে হয় না। আমার মনে হয় ইনিংসে ৬-৭ ওভার বাকি থাকার সময়ই পোলার্ডের ব্যাটিংয়ে নামার উপযুক্ত সময়।’

ক্ষুব্ধ পোলার্ড ম্যাচের পরেই বেশ কিছু টুইট করেন। এর একটিতে লেখেন, ‍‍“আপনি মুখে যা আসে তা-ই বলতে পারেন, কারণ কথা বলার জন্যই আপনি টাকা পাচ্ছেন। আপনি আপনার কথার ‘ডায়রিয়া’ চালিয়ে যেতে পারেন।”

কিছুদিন আগেই টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার সঙ্গে টুইট-যুদ্ধে মুখোমুখি হয়েছিলেন মাঞ্জরেকার। তামিলনাড়ুর রাজনীতি নিয়ে মন্তব্য করেও সম্প্রতি সমালোচনার মধ্য পড়েছিলেন।

র‍্যাঙ্কিং নিয়ে সানিয়ার একটি টুইটে মাঞ্জরেকার যে মন্তব্য করেছিলেন তাতে পোলার্ডের মতোই ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন টেনিস তারকা। সানিয়ার টানা ৮০ সপ্তাহ র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকার সংবাদটি রিটুইট করে মাঞ্জরেকার লেখেন, ‘তুমি নিশ্চয়ই ডাবলস র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরের কথা বলছ। অভিনন্দন।’

এই কথার মধ্যে যে খোঁচা আছে, সানিয়া ঠিকই অনুভব করেছেন। এককের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা আর ডাবলসের শীর্ষে থাকার মধ্যে বিস্তর ফারাক।

সানিয়া এর উত্তরে লেখেন, ‘আমি যেহেতু সিঙ্গেলস খেলি না, সেহেতু এটা কি সাধারণ বোধ-বুদ্ধির পর্যায়ে পড়ে না? হায় হায়! সাধারণ বোধ-বুদ্ধি এখন আর সাধারণ কোনো বিষয় নয়!’

মাঞ্জরেকার এর উত্তরে বলেন, ‘আমার মতো অনেকেরই যেহেতু সাধারণ বোধ-বুদ্ধি একটু কম, তোমার তাই এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়া ঠিক হয়নি।’

সানিয়া এরপর র‍্যাঙ্কিং নিয়ে একটা লেখার লিংক দিয়ে বলেন, ‘এই যে আপনার “গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার”

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট