যেসব বিষয় মনে রাখবেন প্রাণী পুষতে

যেসব বিষয় মনে রাখবেন প্রাণী পুষতে

আপনি কী পশুপাখি ভালোবাসেন? অথবা, প্রতিবেশীদের পোষা প্রাণীটিকে দেখে খুশি হন? যদি উত্তর আসে ‘হ্যাঁ’ বোধক তাহলে আপনি নিঃসন্দেহে পশুপাখি প্রেমী। আপনি যদি সিদ্ধান্ত নেন প্রাণী পুষবেন তাহলে কিছু বিষয় অবশ্যই মনে রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে জীবনধারা বিষয়ক ওয়েবসাইট ফেমিনার দেওয়া পরামর্শগুলো দেখে নিতে পারেন।

১. দায়িত্ববোধ

পোষা প্রাণী রাখা অনেক দায়িত্বপূর্ণ কাজ। পশুপাখি যেহেতু কথা বলতে পারে না তাই নিজের সন্তানের মতো তাদের লালন-পালন করতে হয়। এই দায়িত্বটি পালন করতে পারবেন কী না আগে নিশ্চিত হন।

২. সময় দেওয়া

পোষা প্রাণী সময় ও মনোযোগ চায়। বিশেষ করে কুকুর। আপনি যদি তাকে পর্যাপ্ত সময় না দেন তাহলে সে অত্যন্ত মর্মাহত হয়ে পড়বে। তাই আগে নিশ্চিত হন প্রাণীটির জন্য আপনার সময় হবে কি না। যদি একান্তই সময় দিতে না পারেন সেক্ষেত্রে প্রাণীর দেখভালের জন্য বিকল্প কাউকে রাখা যেতে পারে।

৩. পরিবারের সদস্য মনে করা

আপনি কুকুর/বিড়াল ভালোবাসেন কিন্তু আপনার অভিভাবক/সঙ্গী কী অপছন্দ করে? যদি উত্তর হয় ‘হ্যাঁ’ তাহলে আগে পরিবারের সদস্যদের মানিয়ে নিন। কেননা অবহেলা কিংবা নিষ্ঠুরতা দিয়ে প্রাণীকে পুষতে পারবেন না।

৪. প্রাণীটির দেখাশোনার পূর্ণ ব্যবস্থা করা

পোষা প্রাণীটির যত্ন আপনি শুধু একা নিচ্ছেন এমন যেন না হয়। কেননা যখন কোনো কাজে আপনি বাসার বাইরে অবস্থান করবেন তখন যেন প্রাণীটির দেখাশোনা করার মতো অন্য কেউ থাকে তা অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে।

৫. আর্থিক সচ্ছলতা

পোষা প্রাণীটিকে শুধু আদর ও সময় দেওয়াই প্রধান বিষয় নয়। সেই সঙ্গে প্রয়োজন নিয়মিত ডাক্তার দেখানো এবং বিভিন্ন টিকা দেওয়া। প্রাণীটির খাদ্য এবং ডাক্তারের যাবতীয় খরচের জন্য প্রতি মাসে একটা বাজেট নির্ধারণ করতে হবে। তাই তখনই কোনো প্রাণীকে বাসায় আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত, যখন তার সব ব্যয় বহন করার সামর্থ্য থাকবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট