আজও যাত্রীদের অভিযোগ, ভাড়া আদায়ে নির্দেশনা মানছে না সংশ্লিষ্টরা

আজও যাত্রীদের অভিযোগ, ভাড়া আদায়ে নির্দেশনা মানছে না সংশ্লিষ্টরা

শনিবার থেকে রাজধানীতে সিটিং সার্ভিস বন্ধ রয়েছে। আজও যাত্রীদের অভিযোগ, দূরত্ব অনুযায়ী ভাড়া আদায়ে বিআরটিএ’র নির্দেশনা মানছেনা চালক ও সহকারীরা।

এদিকে, সকাল থেকে গণপরিবহন কিছুটা কম থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন অফিসগামী যাত্রীরা। বিভিন্ন রুটের যাত্রীদের অভিযোগ, বিআরটিএ’র নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে বেশি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এমনকি কোন কোন বাসে বিআরটিএ’র নির্ধারিত ভাড়ার তালিকাও নেই।

বাসের চালক ও সহকারীরা বলছেন, কোম্পানি থেকে ভাড়ার যে তালিকা আগে দেয়া ছিলো তা এখনো রয়েছে, তাই আগের ভাড়াই নিচ্ছেন কর্মীরা।

এদিকে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি’র (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান মশিউর রহমান জানিয়েছেন, রাজধানীতে অভিযানের সময় বাস চালানো বন্ধ রাখলে রুট পারমিট বাতিল করা হবে।

আজ সোমবার শাহবাগে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শনকালে এ কথা বলেন তিনি। এসময় এক বাসচালককে জেল ও একটি বাস ডাম্পিং করা হয়।

মশিউর রহমান বলেন, অভিযান চলাকালে দেখা যায়- রাজধানীতে বাস সংখ্যা কমে যায়, যা আমাদের নজরে এসেছে। তাই এই নির্দেশ দেওয়া হলো।

তিনি বলেন, সিটিং সার্ভিস চালু হবে এমন গুজবে কান দেওয়ার কিছু নেই। এটি আর চালু হবে না। কারণ ‘সিটিং সার্ভিস’ নামে কোনো সার্ভিস বিআরটিএ অনুমোদন দেয়নি। ভাড়ার চার্টেই রাজধানীতে গাড়ি চলবে। এজন্য জনগণ ও দেশবাসীর সহায়তা কামনা করেন তিনি।

গতকাল রোববার রাজধানীর সাতরাস্তা মোড়ে গণপরিবহনে অনিয়ম ও সিটিং সার্ভিস বন্ধের অভিযানের উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এরপর থেকে রাজধানীর ৫টি স্পটে অভিযান চলছে। এজন্য নিয়মানুযায়ী বাসে রাখতে হবে সুস্পষ্ট ভাড়ার তালিকা।

অভিযানে সিটিং সার্ভিস বন্ধ, ভাড়ার তালিকা দৃশ্যমান, রুট পারমিট ও ড্রাইবারের লাইসেন্স দেখা হচ্ছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক