ঘরের মাঠে ডেভিলস বধ ওয়ার্নারদের

ঘরের মাঠে ডেভিলস বধ ওয়ার্নারদের

যিনি আসছেন, তিনিই নায়ক। এটাই চ্যাম্পিয়ন টিমের বোধ হয় যথার্থ উদাহরণ। আজ টিমে দু’টো পরিবর্তন। দুই বিকল্পেই বাজিমাত ! এমনও সম্ভব ! আজ টিমে বারিন্দার স্রান ও মহম্মদ নবির পরিবর্তে টিমে এসেছিলেন মহম্মদ সিরাজ় ও কেন উইলিয়ামসন। ব্যাটে কেনের তাণ্ডবের পর বোলিংয়ে জ্বলে উঠলেন ঘরের ছেলে মহম্মদ সিরাজ। শ্রেয়স আয়ার ও ম্যাথিউজ়ের লড়াইয়েও শেষরক্ষা হল না। ঘরের মাঠে ১৭ রানে ডেয়ার ডেভিলসকে হারাল সানরাইজ়ার্স হায়দরাবাদ।

দিল্লি শিবিরে প্রথম ধাক্কা দিলেন সিরাজই। তাঁর ডেলিভারিতে আউট হয়ে ফিরলেন ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যান সঞ্জু স্যামসন (৪২)। অন্য ওপেনার স্যাম বিলিংসও (১৩) ফিরলেন তাঁর ডেলিভারিতেই। এরপর দিল্লির হয়ে ভালো খেলা শুরু করেন করুণ নায়ার (২৩)। ভালো রান আউটে যুবির হাতে ফিরতে হয় তাঁকে। আরও এক ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যান ঋষভ পান্থকে ফেরালেন স্পিনার যুবি। শূন্য রানে ফেরেন তিনি। এত কিছুর পরেও থামানো যায়নি আজ ডেয়ার ডেভিলসকে। লোয়ার অর্ডারে অসাধারণ পারফর্ম করে টিমকে এগিয়ে নিয়ে গেলেন শ্রেয়স আয়ার (৪৯) ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ় (৩১)। কিন্তু রানতাড়া করা সম্ভব হল না সানরাইজ়ার্সের অলওভার পারফরম্যান্সে।

আজ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন সানরাইজ়ার্স অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। দ্বিতীয় ওভারেই ক্রিস মরিসের ডেলিভারিতে আউট হয়ে ফেরেন ওয়ার্নার। এরপর ১৬.১ ওভারে আসে দ্বিতীয় উইকেট। ছ’টি বাউন্ডারি ও পাঁচটি ওভার বাউন্ডারি। ১৭৪.৫০ স্ট্রাইক রেট নিয়ে উইলিয়ামসন ফেরেন মরিসের ডেলিভারিতেই। ২০ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান তোলে সানরাইজ়ার্স হায়দরাবাদ। ধাওয়ান করলেন ৫০ বলে ৭০। আফগান ক্রিকেটার মহম্মদ নবির পরিবর্তে টিমে এসেই উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে এল ৫১ বলে ৮৯ রান। দ্বিতীয় উইকেটে তাঁদের পার্টনারশিপে স্কোরবোর্ড যোগ হয় ১৩৬ রান। কিন্তি সানরাইজ়ার্সের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের কাছে বশ্যতা স্বীকার করতে হল ডেয়ার ডেভিলসকে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট