মুসলিমরা হিন্দু যুবকের মৃতদেহ রীতি মেনে দাহ করলেন 

মুসলিমরা হিন্দু যুবকের মৃতদেহ রীতি মেনে দাহ করলেন 

হিন্দু যুবকের মৃতদেহ রীতি মেনে দাহ করলেন মুসলিমরা। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই বিরল ঘটনা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার মানিকচকে। মুসলিম অধ্যুষিত মালদার মানিকচক ব্লকে শেখপুরা গ্রামে কয়েকটি মাত্র হিন্দু পরিবারের বসবাস। সোমবার রাতে এই হিন্দু পরিবারের সদস্য বিশ্বজিৎ রজকের মৃত্যু হয়। দীর্ঘদিন ধরে লিভার ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি।

তার পরিবারের আর্থিক অবস্থাও ভালো না। সৎকার করার জন্য আর্থিক অসঙ্গতির পাশাপাশি লোকবলও নেই এই হিন্দু পরিবারের। মৃতদেহের সামনে বসে সৎকার নিয়ে যখন দুশ্চিন্তায় ভুগছিলেন এই পরিবার, তখন দেবদ্যুতের মতো হাজির হন ওই গ্রামেরই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা। মৃতদেহ সৎকারের সমস্ত দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নেন তারা।

হিন্দু রীতিনীতি মেনে, বাঁশের মাচায় মৃতদেহ নিয়ে দীর্ঘ ৮কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে মৃতদেহ নিয়ে মানিকচক শশ্মান ঘাটে পৌঁছান মুসলিম প্রতিবেশীরা। এমনকি রাম নাম সত্য হে, বল হরি হরি বল বলতে বলতে শশ্মানে পৌঁছান তারা। হিন্দুরীতি মেনে দাহ করা হয় দেহ।

সব কাজ শেষে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরা জানান, হিন্দু-মুসলমান ভারতমাতার দুই সন্তান। একে অপরের বিপদে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। মুসলিম সম্প্রদায়ের এই আন্তরিকতায় খুশি মৃত বিশ্বজেতের পরিবার।

ঘটনার খবর পেয়ে এলাকায় ছুটে যান মালদা জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি তৃণমূলের গৌর মন্ডল। শশ্মানযাত্রায় পা মেলান তিনিও। শবযাত্রা শেষে তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এই নজির বাংলা তথা দেশকে পথ দেখাবে।

ধর্মের নামে দাঙ্গা হানাহানি বর্তমান প্রেক্ষাপটে ভারত কার্যত আগ্নেয়গিরির ওপর অবস্থান করছে। এই প্রেক্ষাপটে মানিকচকের ঘটনা নিসন্দেহে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অন্যন্য নজির। যা সমগ্র দেশকে পথ দেখাবেন বলে মনে করেন মালদার আম আদমি থেকে বুদ্ধিজীবী সবাই।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট